• ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬

তাপদাহের মধ্যেও আজ হতে পারে স্বস্তির বৃষ্টি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৭ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪৪ | আপডেট : ২৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:১৩
ভোরের আলো ফুটতে ফুটতেই মৃদু ও মাঝারী তাপদাহে পুড়ছে মানুষ। সূর্য ডোবার পরও তাপমাত্রা কমছে না। শীতল হচ্ছে না চারপাশ। ফলে অসহনীয় গরমে মানুষ হাঁসফাঁস করছে। আজ শনিবার ঢাকায় সর্বোচ্চ ৪০.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকতে পারে। তবে স্বস্তির খবর হচ্ছে আজ (শনিবার) বৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে। বৃষ্টিপাত হলে তাপদাহ কমে আসবে। এমনটি জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

whirpool
এছাড়া আজ চট্টগ্রামে ৩৬.১ ডিগ্রি, সিলেটে ৩৪.৪ ডিগ্রি, ময়মানসিংহে ৩৩.৮ ডিগ্রি, রাজশাহীতে ৪১.৫ ডিগ্রি, রংপুরে ৩৪ ডিগ্রি, খুলনায় ৪১.৪ ডিগ্রি, বরিশাল ৩৬.৬ ডিগ্রি সর্বোচ্চ তাপমাত্রা হতে পারে।

এ বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক শনিবার সকাল ৯টায় আরটিভি অনলাইনকে বলেন, আজ ঢাকায় ৪০.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও দেশের বিভিণ্ন স্থানে এর চেয়ে বেশি তাপমাত্রার পূর্বাভাস দেখতি পারছি। তবে দুপুর গড়ালে বুঝা যাবে তাপমাত্রা কি অবস্থাতে রয়েছে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় এ গরম পড়েছে। বৃষ্টি না হলে বায়ুমণ্ডল ঠাণ্ডা হবে না। বৃষ্টির পরেই তাপমাত্রা কমবে। আজ দেশের বিভিন্ন স্থানে মেঘের ঘনঘটা দেখা যাচ্ছে। বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখতে পারছি আমরা।

তিনি আরও বলেন, তবে বৃষ্টিপাতের পর কিছুদিন তামপাত্রা কমবে। তবে মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে আবহাওয়া ধীরে ধীরে আগের অবস্থানে ফিরে যাবে। তখন দিনের ও রাতের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে।

আবহাওয়াবিদ বলেন, আমরা বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ দেখছি। নিম্নচাপটি সমুদ্র উপকূল থেকে দুই হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। ফলে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমূদ্র বন্দরকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। তাই উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত গভীর সাগরে বিচরণ করতে নিষেধ করা হয়েছে।

এদিকে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। নিম্নচাপটি শনি অথবা রোববারের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। এ কারণে দেশের সমুদ্রবন্দরকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে ‘ফণি’।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে উপকূলে একটি নিম্মচাপ অবস্থান করছে। ফলে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং কুমিল্লা অঞ্চলসহ খুলনা, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কিছু কিছু এলাকায় শিলা বৃষ্টিও হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, মাদারীপুর, রাঙামাটি, নোয়াখালী, ফেনী, রাজশাহী, যশোর, বাগেরহাট ও পটুয়াখালী অঞ্চলের উপর দিয়ে বয়ে চলা মৃদু তাপপ্রবাহ প্রশমিত হতে পারে। যার ফলে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা হ্রাস পাবে।

এমসি/ জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়