Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

ফ্লাইট না চালানোর হুমকি পাইলটদের

বিমান

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিমানের পাইলদের বেতন কর্তন আর অন্যসব কর্মকর্তাদের সঙ্গে বেতন বৈষম্য নিয়ে পাইলটদের মাঝে অস্থিরতা বিরাজ করছে। আগামী ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে অস্থিরতা নিরসন না হলে বাংলাদেশ বিমান ও পাইলটদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির বাইরে ফ্লাইট চালাবেন না পাইলটরা। এতে সৌদি আরব, কাতার ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফ্লাইট পরিচালনার জন্য পাইলট সংকটে পড়বে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

বুধবার (১৪ জুলাই) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পাইলটদের সংগঠন বাংলাদেশ পাইলট অ্যাসোসিয়েশনের (বাপা) নির্বাহী কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কমিটির দায়িত্বশীল একজন সদস্য বলেন, বিমানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পাইলটদের বেতন শিগগিরই সমন্বয়ে বিমানকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিবাদ জানানো হবে। বিমান ও বাপার মধ্যে সম্পাদিত দ্বিপাক্ষিক চুক্তিপত্রের বাইরেও ফ্লাইট পরিচালনা করেছেন পাইলটরা। তবে ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে বেতন সমন্বয় না করলে পাইলটরা শুধুমাত্র বিমান-বাপার মধ্যে সম্পাদিত দ্বিপাক্ষিক চুক্তিপত্র অনুযায়ী ফ্লাইট পরিচালনা করবেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে এ বছরের মে’তে বাংলাদেশ বিমানে কর্মরতদের বেতন কাটার একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মঙ্গলবার বিমানের পরিচালক (প্রশাসন) জিয়াউদ্দীন আহমেদের একটি অফিস আদেশে বিমানের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন কর্তনের ওই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়। তবে পাইলটদের ২৫ থেকে ৫০ শতাংশ বেতন কর্তনের বিষয়টি বহাল থাকে। মূলত এ সিদ্ধান্ত থেকেই পাইলটদের ক্ষোভের সূত্রপাত।

বাপার সভাপতি ক্যাপ্টেন মাহবুবুর রহমান বলেন, করোনা সংক্রমণের এসময়ে ফ্রন্টলাইনার কোনো বেতন কর্তন হয়েছে বলে জানা নাই। প্রথমে পাইলটদের কর্তন একটি অন্যায়, এখন আবার বেতন বৈষম্য আরেকটি অন্যায় হয়েছে।

এফএ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS