Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

কঠোর লকডাউনে গার্মেন্টস খোলা নিয়ে যা বললেন মালিকরা 

গার্মেন্টস কর্মী

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে ৭ দিনের জন্য সারাদেশে কঠোর লকডাউন জারি করেছে সরকার। এ লকডাউনে গার্মেন্টস খোলা থাকবে কিনা তা নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে।

গার্মেন্টস খোলা রাখার প্রসঙ্গে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ)’র সভাপতি ফারুক হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, তৈরি পোশাক কারখানা বন্ধ হলে সব কর্মীরা বাড়ি যেতে চাইবে। ফলে তাদের মাধ্যমে করোনা সংক্রমণ আরো বেশি ছড়িয়ে পড়বে। তাই তাদের কর্মস্থলে রাখলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে না। করোনা সংক্রমণও নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হবে।

তিনি আরো বলেন, গার্মেন্টস বন্ধ করা হলে বায়াররা চলে যাবে। ফলে ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করার সুযোগ আমাদের জন্য কঠিন হয়ে যাবে।

শুক্রবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় তথ্য অধিদপ্তরের প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকারের স্বাক্ষর করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে— সোমবার সকাল ৬টা থেকে সারাদেশে লকডাউন শুরু হবে। এ সময় জরুরি সেবা ব্যতীত সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। জরুরি পণ্যবাহী ব্যতীত সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। অ্যাম্বুলেন্স ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে শুধু যানবাহন চলাচল করতে পারবে। জরুরি কারণ ছাড়া বাইরে কেউ বের হতে পারবেন না।’

গত বছর করোনা পরিস্থিতির শুরুতে লকডাউন ঘোষণা করা হলে কারখানা বন্ধ হওয়ায় গ্রামে ছুটে গিয়েছিলেন হাজার হাজার গার্মেন্টকর্মী। পরে বেতন দেওয়ার কথা শুনে ট্রাকে গাদাগাদি করে ও পায়ে হেঁটে কর্মস্থলে ফিরে আসেন সবাই। কিন্তু ঢাকায় পৌঁছে তারা জানতে পারেন যে, কারখানা বন্ধ। ফলে ওই সময় হাজার হাজার শ্রমিক অনিশ্চয়তায় পড়েন।

জেএইচ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS