২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে যেতে যেসব সড়ক খোলা ও বন্ধ থাকবে

প্রকাশ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:১০

আরটিভি নিউজ
২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে যেতে যেসব সড়ক খোলা ও বন্ধ থাকবে

২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসটি সুশৃঙ্খলভাবে উদযাপনে বেশকিছু পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) । এজন্য ২০ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টা পর্যন্ত জনসাধারণের ও সব ধরনের যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণে ট্রাফিক নির্দেশনা দিয়েছে।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশের ক্ষেত্রে পলাশী ক্রসিং, এসএম হল এবং জগন্নাথ হলের সামনের রাস্তা ব্যবহার করতে হবে। অপরদিকে শহীদ মিনার থেকে বের হতে দোয়েল চত্বরের রাস্তা অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনের রাস্তা ব্যবহার করতে হবে। নির্দেশিত রাস্তাগুলো ছাড়া অন্য কোনো রাস্তা ব্যবহার করে শহীদ মিনারে প্রবেশ বা সেখান থেকে বের হওয়া যাবে না।

বন্ধ থাকবে যেসব রাস্তা
১. বকশিবাজার-জগন্নাথ হল ক্রসিং সড়ক।

২. চাঁনখারপুল-রমনা চত্বর ক্রসিং সড়ক।

৩. টিএসসি-শিববাড়ী মোড় ক্রসিং।

৪. উপাচার্য ভবন-ভাস্কর্য ক্রসিং (ফুলার রোড)।

ডাইভারশন ব্যবস্থা

১. শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা পর্যন্ত রাস্তায় আলপনা আঁকার জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আশপাশের রাস্তা বন্ধ থাকবে। এ সময় শিববাড়ী, জগন্নাথ হল ও রমনা চত্বর ক্রসিংগুলোতে যান ডাইভারশন দেওয়া হবে।

২. ২০ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি (রোববার) ২টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় যত্রতত্র অনুপ্রবেশ বন্ধের লক্ষ্যে নীলক্ষেত, পলাশী মোড়, ফুলার রোড, বকশীবাজার, চাঁনখারপুল, শহিদুল্লাহ হল, দোয়েল চত্বর, জিমনেশিয়াম, রমনা চত্বর, হাইকোর্ট, টিএসসি, শাহবাগ ইন্টারসেকশনগুলোতে রোড ব্লক দিয়ে যান ডাইভারশন দেওয়া হবে।

৩. ২১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৫টায় সাইন্সল্যাব থেকে নিউমার্কেট ক্রসিং, কাঁটাবন ক্রসিং থেকে নীলক্ষেত ক্রসিং এবং ফুলবাড়িয়া ক্রসিং থেকে চাঁনখারপুল ক্রসিং পর্যন্ত প্রভাত ফেরি উপলক্ষে সব ধরনের যাত্রীবাহী যান প্রবেশ বন্ধ থাকবে।

পার্কিং ব্যবস্থা

১. একুশের প্রথম প্রহরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জিমনেশিয়াম মাঠে ভিআইপি গাড়িগুলোর জন্য পার্কিং ব্যবস্থা থাকবে।

২. সাধারণ নাগরিকদের নীলক্ষেত-পলাশী, পলাশী-ঢাকেশ্বরী সড়কগুলোতে গাড়ি পার্কিং করতে পারবেন।

সাধারণ নির্দেশনাবলী

১. বর্তমান করোনা অতিমারী পরিস্থিতিতে কবরস্থান এবং শহীদ মিনারে যারা শ্রদ্ধার্ঘ ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন তাদের মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক।

২. কবরস্থান এবং শহীদ মিনারে যারা শ্রদ্ধার্ঘ ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করতে যাবেন তাদের রাস্তায় বসা বা দাঁড়ানো থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

৩. সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার জন্য রাস্তায় কোনো প্রকার প্যান্ডেল তৈরি না করা।

৪. শহীদ মিনারে প্রবেশের ক্ষেত্রে আর্চওয়ের মাধ্যমে তল্লাশি করা হবে। এক্ষেত্রে সবাইকে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

৫. শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ থেকে প্রচার করা নির্দেশনা নাগরিকদের মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

৬. কোনো ধরনের ব্যাগ সঙ্গে বহন করা যাবে না।

৭. যেকোনো পুলিশি প্রয়োজনে শহীদ মিনার এলাকায় স্থাপিত অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। 

এফএ