Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

ধর্ষণের শিকার শিশুদের পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল

High Court rule to rehabilitate and compensate rape victims
ফাইল ছবি

ধর্ষণের শিকার শিশুদের কেন পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রুল জারি করেন। এছাড়া শিশু ধর্ষণের মামলা প্রমাণিত হোক বা না হোক, ধর্ষণের শিকার শিশুকে পুনর্বাসন করতে প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ দিতে একটি বিধিমালা তৈরিতে সরকারকে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম। সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান ও অ্যাডভোকেট শায়লা জাহান। ৭ দিনের মধ্যে স্বরাষ্ট্রসচিব, নারী ও শিশু বিষয়ক সচিব, স্বাস্থ্য সচিবসহ ১৫ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে প্রকাশিত ৩ টি ধর্ষণের ঘটনা যুক্ত করে গত ২ জানুয়ারি হাইকোর্টে রিট দায়ের করে ‘চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন’ নামে একটি সংগঠন। রিটের আইনজীবী আব্দুল হালিম জানান, ধর্ষণের মামলায় ৯৭ শতাংশ আসামির খালাস হয়ে যায়। তার মানে ৯৭ শতাংশ কি ধর্ষণ হয়নি? এই খালাসের কারণ হলো রাষ্ট্র যথেষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ হাজির করতে ব্যর্থ হয়েছে। এর জন্য দায়ভার ভিকটিম কেন নেবে। কেননা তার আত্মমর্যাদা রয়েছে। শিশুটির লেখাপড়া ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এসব শিশুরা স্কুলে পর্যন্ত যেতে পারছে না। তাহলে সে কোথায় যাবে। এখানেই হলো রাষ্ট্রের দায়িত্ব। সারা পৃথিবীতে ধর্ষণের শিকার ভিকটিমদের পুনর্বাসনের বিধান রয়েছে। ভারতের সুপ্রিমকোর্ট একটি ধর্ষণের ঘটনায় ১০ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সেটি আমরা নজির হিসেবে দিয়েছি।

‘শিশু মাইশাকে যৌন নিপীড়নের চেষ্টার পর হত্যা করে ডোবায় ফেলেন প্রতিবেশী’, ‘তিন বছরেও স্বাভাবিক হতে পারেনি সেই পূজা’, ‘স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেপ্তার’ শিরোনামে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। ওইসব প্রতিবেদন যুক্ত করে হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ এ আদেশ দেন।

কেএফ

RTV Drama
RTVPLUS