logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

বাবুনগরী ও মামুনুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ৩ ফেব্রুয়ারি

Babungari-Mamunur and Faizul's case report on 3 February
ফাইল ছবি
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের বিরোধিতা করে বক্তব্য দেয়ার কারনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির জুনায়েদ বাবুনগরীসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় তদন্ত প্রতিবেদনের তারিখ আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) মামলা ২টি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি। এজন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বাকী বিল্লাহ প্রতিবেদন দাখিলের এ তারিখ ঠিক করেন। মামলার অপর আসামি হলেন, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম।

মামলা দু’টির মধ্যে একটি দায়ের করেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট মশিউর মালেক এবং অন্যটি দায়ের করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল।

অ্যাডভোকেট মশিউর মালেকের দায়ের করা মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০২০ সালের ১৩ নভেম্বর বিএমএ মিলনায়তনে বাংলাদেশ যুব খেলাফত মজলিসের ঢাকা মহানগর শাখার সমাবেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে মামুনুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য গড়তে দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে লাশের পর লাশ পড়বে। আবার শাপলা চত্বর হবে।

মামুনুল হকের এমন বক্তব্যের পর একটি শ্রেণি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে একের পর এক বক্তব্য দিচ্ছে। দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধিতা করে উত্তেজনাকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ এনে বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ১২০বি, ১৫৩ ও ১২৪ক ধারায় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ এনে হয়। মামলাতে মাওলানা মামুনুল হককে একমাত্র আসামি করা হয়।

অন্যদিকে, আমিনুল ইসলাম বুলবুলের আবেদনে বলা হয়, সরকার পতনের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ৩ আসামি। জুনায়েদ বাবুনগরী ও মওলনা মামুনুলের জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে সৈয়দ ফয়জুল করিম গেন্ডারিয়ায় অনুসারীদের জড়ো করে তৌহিদি জনতার ব্যানারে সমাবেশ করে। সেখানে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যকে মূর্তির সঙ্গে তুলনা করে ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের উসকানি দেওয়া হয়।

এই মামলার আবেদনে বিএমএ মিলনায়তনে মাওলানা মামুনুল হকের বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতার প্রসঙ্গ উল্লেখ করা হয়। এছাড়া ২০২০ সালের ২৭ নভেম্বর হাটহাজারীর সমাবেশ থেকে জুনায়েদ বাবুনগরীর বক্তব্যেও বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতার উল্লেখ করা হয়েছে। জাতির জনকের ভাস্কর্যের বিরোধিতা এবং এসব ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল উল্লেখ করে ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়।

কেএফ

RTV Drama
RTVPLUS