ঢাবির টিএসসি থেকে জিনিয়ার অপহরণকারী লোপা কারাগারে

প্রকাশ | ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৩১ | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৩৭

আরটিভি নিউজ
জিনিয়া অপহরণের ঘটনায় গ্রেপ্তার নূর নাজমা আক্তার লোপা তালুকদার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকার ফুল বিক্রেতা পথশিশু জিনিয়াকে (৯) অপহরণের ঘটনায় গ্রেপ্তার নূর নাজমা আক্তার লোপা (৪২) তালুকদারকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সংশ্লিষ্ট মামলার শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আদলতে শুনানির সময়ে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা রমনা জোনাল টিমের উপ-পরিদর্শক মো. শাহজাহান মিয়া দুই দিনের রিমান্ড শেষে লোপাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। এদিকে আসামিপক্ষে আতাহার হোসেন ফরাজী জামিন চেয়ে শুনানি করেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে সংশ্লিষ্ট থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) শরিফুল ইসলাম জামিনের বিরোধীতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে লোপাকে কারাগারে আটক রাখার আদেশ দেন।

এর আগে গত ৮ সেপ্টেম্বর লোপার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। গত ৭ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানার আমতলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে জিনিয়াকে উদ্ধার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) রমনা জোনাল টিম। এ সময় লোপা তালুকদাকে গ্রেপ্তার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

পুলিশের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ফুচকা খাইয়ে ও ঘোরাঘুরি করিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি এলাকা থেকে ফুল বিক্রেতা জিনিয়াকে অপহরণ করে নূর নাজমা আক্তার লোপা তালুকদার। গত সোমবার রাত ১টা ১০ মিনিটে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার আমতলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ভিক্টিম জিনিয়াকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী লোপা তালুকদারকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরেরদিন মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) যুগ্ম পুলিশ কমিশনার মো. মাহবুব আলম এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান। 

এই লোপা তালুকদার সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ছবি তুলে রেখেছে। মন্ত্রী এমপি, এমনকি খোদ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও ছবি তুলে সে। তাই অনেকেই লোপাকে রিজেন্ট গ্রুপের সাহেদের ‘লেডি ভার্সন’বলে মন্তব্য করছেন।

লোপা নিজেকে একজন সিনিয়র সাংবাদিক এবং আওয়ামী পেশাজীবী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে নানা অপকর্মে লিপ্ত ছিল। এই নারীর বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ, মানব পাচারসহ বেশ কিছু মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: ‘খারাপ উদ্দেশ্যে’ জিনিয়াকে অপহরণ করে লোপা: ডিবি

কেএফ/পি