ঈদের সকালে সড়কে গেল ৯ প্রাণ

প্রকাশ | ০৫ জুন ২০১৯, ০৯:৪৪ | আপডেট: ০৫ জুন ২০১৯, ১৫:১৩

স্টাফ রিপোর্টার, ফরিদপুর ও লালমনিরহাট প্রতিনিধি

ঈদের সকালে ফরিদপুর ও লালমনিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় নয়জন নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে ফরিদপুরে ৬ জন ও লালমনিরহাটে তিনজন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৩০ জন। 

ফরিদপুর সদর উপজেলায় বুধবার সকাল পৌনে সাতটার দিকে ধুলদী রেলগেট এলাকায় একে ট্রাভেলসের একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। হতাহতদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তবে নিহতদের মধ্যে বাসের ড্রাইভার ও হেলপার রয়েছে বলে জানা গেছে। 

অপরদিকে লালমনিরহাট সদর উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের শিমুলতলা বাজারে কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। রংপুর থেকে আসা একটি পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের শহীদ মিনারে ধাক্কা খেয়ে উল্টে যায়।
পুলিশ জানিয়েছে, এতে ঘটনাস্থলেই দুজন এবং লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরও একজন মারা যান। আহত হন অন্তত আরও ১০জন। হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা না গেলেও সবার বাড়ি কুড়িগ্রাম বলে ধারণা করা হচ্ছে।
স্থানীয়রা জানায়, পিকআপে থাকা সবাই রংপুর থেকে ঈদ করার জন্য কুড়িগ্রাম যাচ্ছিলেন।

ফরিদপুরের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. নুরুল আলম দুলাল আরটিভি অনলাইনকে জানান, সকাল পৌনে সাতটার দিকে এ কে ট্রাভেলসের একটি বাস ঢাকা থেকে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের নিয়ে চুয়াডাঙ্গার দিকে যাচ্ছিল। ধুলদী রেলগেট এলাকায় বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন। এসময় আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরো দুজন মারা যান। আহতদের মধ্যে ১৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপরদিকে আহত অবস্থায় পাঁচ বছরের একটি শিশুকে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে পৌছে দেওয়া হয়েছে।

দুর্ঘটনার পর মহাসড়কে সকল ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে ঘরে ফেরা মানুষের চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হচ্ছে।

পি