logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬

রণদা প্রসাদ সাহা হত্যায় মাহাবুবুর রহমানের ফাঁসি (ভিডিও)

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৭ জুন ২০১৯, ১১:৫২ | আপডেট : ২৭ জুন ২০১৯, ১৫:৩৮
স্বাধীনতা পদক পাওয়া দানবীর রণদা প্রসাদ সাহাসহ মুক্তিযুদ্ধে চলাকালে ৬০জনকে হত্যার দায়ে আসামি মাহবুবুর রহমানকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।  

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় দেন ।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত। আসামি মাহবুবুর রহমানের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম। 

এর আগে ২৪ এপ্রিল এ বিষয়ে রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমান (সিএভি) রেখেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। পরে ২৬ জুন রায় ঘোষণার জন্য ২৭ জুন দিন ঠিক করেন ট্রাইব্যুনাল।

মুক্তিযুদ্ধের সময় নারায়ণগঞ্জে রণদা প্রসাদ সাহাকে হত্যা করা হয়। এ মামলায় অভিযুক্ত আসামি টাঙ্গাইলের মো. মাহবুবুর রহমান। তার বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ ও গণহত্যার তিনটি অভিযোগ আনা হয়। 

ট্রাইব্যুনাল ২০১৮ সালের ২৮ মার্চ মো. মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করার নির্দেশ দেন। এর আগে ওই বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি এই আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ১৯৭১ সালের ৭ মে মধ্যরাতে আসামি মাহবুবুর রহমান নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় রাজাকারদের সহায়তায় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীরদের নিয়ে রণদা প্রসাদ সাহার বাসায় গিয়ে  তাঁর ছেলে ভবানী প্রসাদ সাহা, রণদা প্রসাদের ঘনিষ্ঠ সহচর গৌর গোপাল সাহা, রাখাল মতলব ও রণদা প্রসাদ সাহার দারোয়ানকে অপহরণ করে নিয়ে যান। পরে সবাইকে হত্যা করে মরদেহ নদীতে ফেলে দেয়া হয়। 
আসামি মাহবুবুর রহমানের বাবা আবদুল ওয়াদুদ মুক্তিযুদ্ধের সময় মির্জাপুর শান্তি কমিটির সভাপতি ছিলেন। মাহবুবুর রাহমান ও তার ভাই আবদুল মান্নান সে সময় রাজাকার বাহিনীতে ছিলেন।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়