logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

কৃষকের ক্ষতিপূরণে সরকারকে ৫০ লাখ টন ধান কেনার আহ্বান

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৮ মে ২০১৯, ১৭:২৫ | আপডেট : ২৯ মে ২০১৯, ১৪:০২
ধান উৎপাদনে কৃষকের ১৭ হাজার কোটি টাকার ক্ষতিপূরণে সরকারকে এখনই ৫০ লাখ টন ধান ক্রয় করার আহ্বান জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। একইসঙ্গে বাজেটে কৃষিখাতে ২৫ হাজার কোটি টাকার ভর্তুকি দেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

whirpool
মঙ্গলবার (২৮ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘ধানসহ কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য, চ্যালেঞ্জ ও করণীয়’ শীর্ষক জাতীয় সংলাপে বক্তারা এ দাবি জানান। 

খাদ্য অধিকার বাংলাদেশ ও পিকেএসএফ এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদের সভাপতিত্বে সংলাপে খাদ্য অধিকার বাংলাদেশের ভাইস চেয়ারম্যান খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ, সাবেক কৃষি সচিব আনোয়ার ফারুক, বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাবেক গবেষণা পরিচালক ড. মো. আসাদুজ্জামান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সায়েমা হক বিদিশা সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। 

আয়োজকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন একশনএইড এর পরিচালক আসগর আলী সাবরী। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাহানোয়ার সাইদ শাহীন।

এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত কৃষক প্রতিনিধিদের মধ্যে জামালপুরের আনজুমান আরা, নরসিংদীর মুন্নী বেগম, হবিগঞ্জের হরবল্লভ চৌধুরী এবং নাগরিক সামাজের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, উৎপাদনে সফল হলেও গত কয়েক বছর ধরেই কৃষকের ন্যায্য দাম দিতে অনেকটাই ব্যর্থ হয়েছে। বাড়তি উৎপাদন হলেই কৃষক ও খামারিরা ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। যা কৃষি খাতের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। ফলে নীতি ও পরিকল্পনার দুর্বলতার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এজন্য একটি মূল্য কমিশন গঠনসহ পর্যাপ্ত গুদাম তৈরি এবং কৃষি, খাদ্য ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমন্বয় স্থাপন করতে হবে।

খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ বলেন, পশ্চিমা উন্নত দেশগুলোতেও সরকার খাদ্য উৎপাদনে ব্যাপক ভর্তুকি দিয়ে থাকে। আমাদের সরকারও এ ক্ষেত্রে ভর্তুকি দেয় কিন্তু এর সুফল আমাদের কৃষকরা সেভাবে পান না মধ্যস্বত্বভোগীদের কারণে। এর একটা বড় কারণ কৃষকরা এদেশে অসংগঠিত। তাদের সংঘঠিত হয়ে রাজনীতিতে আসতে হবে। এজন্য স্থানীয় পর্যায়ে কয়েকটি গ্রাম নিয়ে সমবায় সমিতি করতে হবে। এভাবে আস্তে আস্তে রাজনীতিতে প্রবেশ করতে পারলে বাজার অর্থনীতির ব্যবস্থা কৃষকদের হাতে থাকবে। সরকার শুধু দায়িত্ব পালন করবে।

এস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়