logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬

স্বামী হত্যায় সাবেক স্ত্রীসহ ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৩ মে ২০১৯, ১৫:২৮
রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকায় জমি ব্যবসায়ী মনির হোসেনকে হত্যা মামলায় সাবেক স্ত্রীসহ চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, মো. আনোয়ার হোসেন(৩৮), মো. মতব্বর শরীফ (৩২), স্বর্ণা আক্তার কাকলী নীপা (২৭) ও মো. ইব্রাহিম খলিল (২৭)।

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে স্বর্ণা আক্তার ও আনোয়ার হোসেন ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর তাদের সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অপর দুই আসামি পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০১৩ সালের ১৭ এপ্রিল মনির হোসেনকে খুন করতে একটি বাসায় ফোন করে ডেকে আনে। পরে আসামিরা মনির হোসেনকে বালিশ চাপা দিয়ে ও ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে। পরবর্তীতে তারা মনির হোসেনের মরদেহ গুম করার জন্য তার মরদেহ ৭ খণ্ড করে বস্তায় ভরে মুন্সিহাটি চামচ ফ্যাক্টরি সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীর পাড়ে ফেলে। 

পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মনির হোসেনের প্রথম স্ত্রী মোছা. হাসিনা বেগম তার মরদেহ সনাক্ত করেন এবং কামরাঙ্গীরচর থানায় ১৯ এপ্রিল মামলা করেন। পুলিশ মামলার তদন্ত করে দণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামির বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ১৪ মে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ওই বছরের ১৯ অক্টোবর আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন। 

মামলাটির বিচারকাজ চলাকালে আদালত চার্জশিটভূক্ত ৩৯ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

মনির হত্যা মামলায় স্বর্ণা আক্তার কাকলী, শরীফ মাতব্বর ও আনোয়ার হোসেন হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সংশ্লিষ্ট আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর আবু আব্দুল্লাহ ভূঞা। উপস্থিত আসামিদের পক্ষে গোলাম কিবরিয়া এবং পলাতকদের পক্ষে এমদাদুল হক লাল মামলাটি পরিচালনা করেন।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়