logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

সেনাবাহিনীর নাম ব্যবহার করে অবৈধ হাউজিং সোসাইটির বিষয়ে সতর্কবাণী

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৯ মে ২০১৯, ১৪:৩২ | আপডেট : ১৯ মে ২০১৯, ১৫:০১
সম্প্রতি ঢাকার উত্তরার মৌশাইর, চালাবন, শাহ কবির মাজার রোড, দক্ষিণ খান এলাকায় অবস্থিত ‘আর্মি সোসাইটিতে ফ্ল্যাট বিক্রয়’ শিরোনামে কয়েকটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের বিষয়ে সেনা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষিত হয়েছে। ওই ‘আর্মি সোসাইটি’ নামক এলাকাটি সেনাবাহিনী বা প্রতিরক্ষা বাহিনীর আবাসিক এলাকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত/স্বীকৃত নয়। বর্ণিত সংস্থার নামটি কোনও সরকারি নথিতে (রেজিস্টার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানি অ্যান্ড ফার্মস) লিপিবদ্ধও নাই।

শনিবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক তথ্য বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, মূলত এলাকাটি আগে থেকেই সেনাবাহিনীর বিভিন্ন প্রশিক্ষণের জন্য ব্যবহার করা হতো বিধায় স্থানীয় জনসাধারণের কাছে ‘আর্মি টেক’ নামে পরিচিতি লাভ করে।

তথ্য বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আনুমানিক ২০/২৫ বছর আগে কতিপয় ব্যক্তি নিজেদের উদ্যোগে যৌথভাবে ‘আর্মি সোসাইটি হাউজ ও নার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’ নামে একটি সমিতি গঠন করেন। এরই প্রেক্ষিতে এলাকাটি ‘আর্মি সোসাইটি’ নামে পরিচিতি লাভ করে। বর্তমানে কথিত ‘আর্মি সোসাইটি’ এলাকায় প্রায় ১৫০ এর অধিক বাড়ি/প্লট রয়েছে। ওই এলাকায় বিভিন্ন ডেভেলপার কোম্পানি কর্তৃক কিছু বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। ওই আবাসিক এলাকায় জমি/ফ্ল্যাটের মূল্য পার্শ্ববর্তী অন্যান্য আবাসিক এলাকার তুলনায় অধিক বলে জানা গেছে।

তথ্য বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কতিপয় ব্যক্তির নিজস্ব উদ্যোগে জমি ক্রয়পূর্বক ‘আর্মি’ নাম ব্যবহার করে এলাকার নামকরণ ‘আর্মি সোসাইটি’ করা যুক্তিযুক্ত নয়। এ ছাড়াও, ‘আর্মি সোসাইটি’ নামটি পুঁজি করি কতিপয় ব্যক্তি/ডেভেলপার কোম্পানি কর্তৃক বর্ণিত জমি/ফ্ল্যাট পার্শ্ববর্তী এলাকার চেয়ে বেশি দামে বিক্রির মাধ্যমে বেসামরিক পরিমণ্ডলে সেনাবাহিনীর সুনাম ও মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করেছে। এহেন অপতৎপরতা জরুরিভিত্তিতে বন্ধ করা আবশ্যক।

এসজে/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়