জাটকা ও আফ্রিকান মাগুর বিক্রি: ১০ মাছ ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড

প্রকাশ | ০৩ মে ২০১৯, ১৭:০৫

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
কারওয়ান বাজারে মাছের আড়তে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত, ছবি: সংগৃহীত

আইন অমান্য করে জাটকা ইলিশ ও আফ্রিকান মাগুর মাছ বিক্রয় করায় রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ১০ জন মাছ ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত কারওয়ান বাজারে মাছের আড়তে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় কারওয়ান বাজারের মাছের আড়তে বিভিন্ন মাছের ফরমালিন পরীক্ষা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম আরটিভি অনলাইনকে বলেন, আইন অমান্য করে জাটকা, আফ্রিকান মাগুর মাছ বিক্রির দায়ে ১২ জন ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে বিভিন্ন মাছ পরীক্ষা করে তাতে ফরমালিনের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। রমজান মাসজুড়ে ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে।

তিনি আরও বলেন, ব্যবসায়ীরা কালোবাজারি করলে বা পণ্যের দাম বাড়ালে ব্যবস্থা নেয়া হবে, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

মাছের আড়তে অভিযানের পাশাপাশি কারওয়ান বাজার কাঁচাবাজারেও অভিযান পরিচালনা করেন সারোয়ার আলম।

এ প্রসঙ্গে সারোয়াল আলম বলেন, বাজারে এখন যেসব ফল ও খেজুর আছে সেগুলো নিরাপদ আছে।

এদিকে কারওয়ান বাজার ঘুরে দেখা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে বয়লার মুরগির দাম কেজিতে ১০ টাকা এবং পাকিস্তানি কক মুরগির দাম ৩০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। ব্যবসায়ীরা প্রতি কেজি বয়লার মুরগি বিক্রি করছেন ১৪০-১৫০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৬০-১৬৫ টাকা। গত সপ্তাহে ২১০-২২০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া লাল লেয়ার মুরগির দাম কমে ১৮০-১৯০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

মুরগির দাম কমলেও অপরিবর্তিত রয়েছে গরু ও খাসির মাংসের দাম। বাজার ভেদে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫৩০-৫৫০ টাকা কেজি। আর খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭৫০-৮৫০ টাকা কেজি।

তবে আগের মতই চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। মানভেদে কাঁচা পেঁপে ও শশা বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা কেজি। বেগুন ৪০-৫০ টাকা ও পাকা টমেটো ৩০-৪০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। দাম অপরিবর্তিত থাকা অন্য সবজির মধ্যে পটল ৪০-৫০, বরবটি ৬০-৭০, কচুর লতি ৫০-৬০, করলা ও ধুন্দল ৬০-৭০, ঢেঁড়স ৩০-৪০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ৬০ থেকে ৭০ বিক্রি হচ্ছে।

খুচরা বাজারে ভালোমানের দেশি পেঁয়াজ প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা। আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা।

এমসি/পি