DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

ভুল আসামিকে আর এক মিনিটও কারাগারে দেখতে চান না হাইকোর্ট

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:২৯ | আপডেট : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:৩১
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় ভুল আসামি জাহালমকে সব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে মুক্তির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আজ রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালত বলেন, ‘বিনা দোষে জাহালমকে কারাগারে রাখা আরেকটি জজ মিয়া নাটকের মতো ঘটনা। ঘটনার সঙ্গে কোনও সিন্ডিকেট জড়িত থাকলে খুঁজে বের করতে হবে।’

নিরীহ শ্রমিক জাহালমকে গ্রেপ্তার ও কারাগারে রাখার ঘটনায় দুদকের তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি কড়া পদক্ষেপ গ্রহণেরও নির্দেশ দেন আদালত।

সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকে ‘৩৩ মামলায় ‘ভুল’ আসামি জেলে: ‘স্যার, আমি জাহালম, সালেক না’ প্রকাশিত শিরোনামের ওই প্রতিবেদনটি গত সোমবার আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট অমিত দাশগুপ্ত।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ রোববার দুদকের মহাপরিচালক (আইন) মইনুল ইসলাম, দুদকের মামলার বাদী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল জাহিদ, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়রে সচিবের একজন প্রতিনিধি ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিবের মনোনীত প্রতিনিধিকে তলব করা হয়। আজ সকালে ওই চারজন হাইকোর্টে হাজির হন। পরে শুনানি শেষে জাহালমকে সব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে মুক্তির নির্দেশ দেয়া হয়। একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে করা ২৬ মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছে দুদক।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (২৮ জানুয়ারি) দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি দৈনিকে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলায় নিরপরাধ জাহালমের জেলখাটা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, আবু সালেকের (মূল অপরাধী) বিরুদ্ধে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলা হয়েছে। কিন্তু আবু সালেকের বদলে আদালতে হাজিরা দিয়ে চলেছেন, জেল খাটছেন জাহালম। তিনি পেশায় পাটকল শ্রমিক।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়