‘জ্যাম বেশি তো লাভ বেশি’

প্রকাশ | ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৯ | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:২৫

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

ঢাকায় নিম্ন আয়ের অনেক পরিবারের আয়ের একমাত্র উৎস হকারি করা। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বা বাসা-বাড়িতে হকারি করে চলে তাদের জীবন। তবে রাজপথেই হকারদের বেশি ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়। কারণ নগরীতে ছুটে চলা কর্মব্যস্ত মানুষ যখন তাদের হাতের নাগালে প্রয়োজনীয় জিনিসটি পেয়ে যায় তখন আর দেরি না করে তা কিনে নেন। আবার হকাররাও তাদের ব্যবসার জন্য যানজটযুক্ত রাস্তার মোড়কেই বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।

সরেজমিনে গিয়ে একাধিক হকারের সাথে এবিষয়ে কথা বললে তারা জানান, ‘ যতো জ্যাম ততো লাভ’। কারণ মানুষ যখন জ্যামে থাকে তখন বাসের হেলপার কিছুটা সুযোগ দেয় হকারি করার। সিটিং বাস তো দরজা খুলে না। কেউ কেউ আবার গাড়ির জানলা খুলে জিনিষ নেওয়ার জন্য ডাক দেয়। সেই সুযোগে আমাদের ব্যবসার বেশি হয়।

বাংলামোটর এলাকায় বাদাম বিক্রেতা আসলাম বলেন, আমাদের বেঁচা কেনার পিক ও অফপিক টাইম রয়েছে। যেমন মনে করেন সকাল ১১টা পর্যন্ত রাস্তার দুইপাশে বেশ জ্যাম থাকে। তখন বেঁচা কেনা ভালো হয়। কেউ কেউ একটু বিরক্ত হয়। কিন্তু বেঁচা বিক্রি হয়। এ তো গেল রোজকার হিসাব। কিন্তু আমাদের ব্যবসার সিজন আছে।     

আসলামের কথা শেষ না হতে হতেই হাজির হয় শুভ। সে বাংলামোটর এলাকায় পেপার বিক্রি করে। আমার প্রতিদিন সকালবেলায় পিক টাইম ।কিন্তু সামান্য ঝড়-বৃষ্টি হলেই অচল হয়ে পড়ে ঢাকা। তখন মানুষের মেজাজ আরও খারাপ থাকে। সে সময় বেঁচা বিক্রি করা যায় না। সিজনের কথা বলতেছেন, সে তো আমাদের কপাল। এই মনে করেন, কোনো সভা-সমাবেশ। কোন বিশেষ দিন আমাদের বেঁচা বিক্রি ভালো হয়। 

জ্যামে পড়লে সবারই একই দশা। যদিও গুরুত্বভেদে জরুরি ভিত্তিতে কিছু গাড়ি চলাচলের কথা। কিন্তু রাস্তা তো একই। কিভাবে চলবে? ব্যতিক্রম দেখা যায় শুধু ভিআইপি, ও ভিভিআইপিদের বেলায়। তখন রাস্তা ফাঁকা হয়ে যায় মুহূর্তেই। আর এর জের টানতে নগরবাসীকে দুর্বিষহ যানজটে আটকা থাকতে হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

পেপার বিক্রেতা রাজু। ফার্মগেট এলাকায় পেপার বিক্রি করে। সে বলে যাদের পেপার পড়ার নেশা থাকে। তারা যে কোন সময়ই পেপার কিনে পড়ে। কিন্তু সমস্যা অন্য জায়গায় পাঁচ টাকার পেপার নেয়। দাম দেয় তিনটাক বলে ভাঙ্গতি নাই।     

সাম্প্রতি বুয়েটের সড়ক দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের (এআরআই) এক গবেষণা রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, ঢাকার যানজট ও যানবাহনের ধীরগতির কারণে বছরে ক্ষতি হচ্ছে ১১.৪ বিলিয়ন ডলার বা লক্ষ কোটি টাকা। শুধু ধীরগতির কারণেই বছরে ক্ষতি হচ্ছে ৩ হাজার কোটি টাকা। গবেষণা রিপোর্ট অনুসারে, যানজটের কারণে ঢাকায় প্রতিদিন ৮.১৬ মিলিয়ন কর্মঘণ্টা সময় নষ্ট হচ্ছে। শুধু উৎপাদনশীলতা বা আর্থিক মানদণ্ডে এই ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ সম্ভব নয়। দেশ ও নগরবাসীর উপর ঢাকার যানজটের অর্থনৈতিক, সামাজিক-মনস্তাত্বিক ক্ষয়ক্ষতি আরো ব্যাপক ও সুদূরপ্রসারি-এই বিষয়টিও গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিতে হবে।

আরো পড়ুন:

আরসি/এমকে