• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ৪ মাঘ ১৪২৫

শুরুর দিনেই বাণিজ্য মেলায় জনস্রোত

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:০৬
প্রতি বছরের মতো এবারও শুরু হয়েছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। বাণিজ্য মেলার ২৪তম এ আসরে বাংলাদেশ ছাড়াও ২৫টি দেশের ৫২টি প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে। মেলার শুরুর দিনেই জনস্রোতে রূপ নেয় বাণিজ্য মেলা।

বুধবার রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মেলার উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন শেষে তিনি বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। 

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মফিজুল ইসলাম ও এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘বাংলাদেশ এ ক্যানভাস অব প্রমিজ’ নামে গত ১০ বছরের উন্নয়নের উপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

রাষ্ট্রপতির উদ্বোধনের আগে থেকে উৎসাহী দর্শনার্থীরা মেলায় প্রবেশের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। সন্ধ্যায় মেলা সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করার পর থেকে মেলায় বাড়তে থাকে ভিড়। 

সন্ধ্যার পরে দর্শনার্থীরা মেলায় ঢুকলেও পণ্য কেনাকাটার সুযোগ তেমন তৈরি হয়নি। সে সময়ে বেশিরভাগ স্টল ও প্যাভিলিয়নে পণ্য গোছাতে ব্যস্ত ছিলেন কর্মীরা। আবার দেশি-বিদেশি অনেক স্টল ও প্যাভিলিয়ন তৈরির কাজ বাকি থাকায় সামনে পর্দা ছিল। তবে কিছু স্টলে কেনাবেচা শুরু হয়েছে।

প্রতি বছরের মতো এবারও রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পশ্চিম পাশের মাঠে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা গেছে, কিছু স্টল ও প্যাভিলিয়নে পণ্য প্রদর্শন করা হলেও তার সংখ্যা খুবই কম। যেসব স্টল ও প্যাভিলিয়নে পণ্য ছিল, তাও অনেকটাই ফাঁকা। তবে এসব স্টলের আশপাশে ছিল পণ্যের স্তূপ।  

রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, মাসব্যাপী এই মেলা ৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হবে। মেলার গেট ও বিভিন্ন স্টল প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। প্রাপ্ত বয়স্কদের প্রবেশের জন্য টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা এবং অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ২০ টাকা। এবারই প্রথম মেলার টিকিট অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে।

মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও স্টলের মোট সংখ্যা ৬০৫টি। যাতে রয়েছে বাংলাদেশসহ থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, সিঙ্গাপুর, মরিশাস, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও জাপানের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

এমসি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়