• ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ইসির ভুয়া চিঠি ইস্যু করে ধরা খেলেন বিআইডব্লিউটিএ সহকারী পরিচালক

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ২০:১৭ | আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ২০:২৭
নির্বাচন কমিশনের ভুয়া চিঠি ইস্যু করে নিজের সাময়িক বরখাস্ত ঠেকাতে গিয়ে ধরা খেলেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) সহকারী পরিচালক মশিউর রহমান।  

বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান বরাবর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিতে নির্বাচন কমিশনের একটি চিঠি সংযুক্ত করে তিনি আবেদন করেন।

western পরে চিঠিটি যাচাইয়ে বিআইডব্লিউটিএ নির্বাচন কমিশনের কাছে পাঠালে বিষয়টি ধরা পরে।

ইসিতে পাঠানো চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিআইডব্লিউটিএর সহকারী পরিচালক মশিউর রহমানকে ২০ নভেম্বর তার দপ্তরে এক নারী কর্মচারীকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করা, অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে অনাকাঙ্ক্ষিত, অবাঞ্চিত ও শৃঙ্খলাবিরোধী আচরণ এবং দাপ্তরিক পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগে আইন অনুযায়ী সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

কিন্তু সাময়িকভাবে বরখাস্ত হওয়া মশিউর রহমান ২২ নভেম্বর বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান বরাবর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিতে নির্বাচন কমিশনের একটি চিঠি সংযুক্ত করে আবেদন করেন।

বিআইডব্লিউটিএর এ চিঠি পাওয়ার পর তদন্তে নামে ইসি। তদন্তে দেখা যায়, নির্বাচন কমিশন থেকে এ ধরনের কোনো চিঠি দেয়া হয়নি। এমনকি মশিউর রহমান ইসিতে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে নিবন্ধিত নন। শহীদুর রহমানের স্বাক্ষরটি তিনি নকল করে এ চিঠি ইস্যু করেছেন।

চিঠিতে মশিউর দাবি করেন, তিনি গত ১১ নভেম্বর থেকে নির্বাচন কমিশনের জনবল ব্যবস্থাপনা শাখা-১ এ প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে নিবন্ধিত আছেন। তার বিরুদ্ধে কোন রূপ প্রশাসনিক, রাজনৈতিক, চাকরির বিধানমালায় অভিযোগ ১১ নভেম্বর থেকে নির্বাচন কমিশনের আওতাধীন। আবেদনের সঙ্গে দেয়া ইসির চিঠিতে নির্বাচন কমিশনের সহকারী সচিব মো. শহীদুর রহমানের স্বাক্ষর রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনের সহকারী সচিব মো. শহীদুর রহমান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, মশিউর রহমান আমার স্বাক্ষরে যে চিঠি জমা দিয়েছেন তা ভুয়া। এ ব্যাপারে দু-এক দিনের মধ্যেই বিআইডব্লিউটিএকে জানিয়ে দিবে ইসি। পাশাপাশি প্রতারণার জন্য নির্বাচন কমিশনও মশিউরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে বিআইডব্লিউটি এর সচিব ওয়াকিল নওয়াজ আরটিভি অনলাইনকে বলেন, মশিউর রহমান দপ্তরে এক নারী কর্মচারীকে শারীরিকভাবে হেনস্থার কারণে সাময়িক বরখাস্ত আছেন। তিনি নির্বাচন কমিশনের একটি চিঠি সংযুক্ত করে চেয়ারম্যান বরাবর আবেদন করেছেন। চিঠিটি নিয়ে আমাদের সন্দেহ হলে আমরা খোঁজ খবর নিতে নির্বাচন কমিশনকে বিষয়টি জানিয়ে একটি চিঠি পাঠায়। নির্বাচন কমিশন চিঠির প্রতি উত্তরে বিষয়টি ভুয়া জানালে আমরা মশিউরের বিরুদ্ধে দাপ্তরিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। 

এমসি/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়