• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬

সুলতান শিশুস্বর্গের চাই পূর্ণ বাস্তবায়ন

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ১০ অক্টোবর ২০১৬, ১১:১৭ | আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০১৬, ১৪:০৩
শিল্পী, সাধক, দার্শনিক- সব রূপেই অনন্য এক নাম এস এম সুলতান। শ্রমজীবীর ঘরে জন্ম নিয়েও জগত-সংসারের বাধা-বিপত্তি পেছনে ঠেলে তুলির আঁচড়ে বিশ্ব জয় করেন তনি।

whirpool
তাই তো ইহধাম ত্যাগের আগে শিল্পী এসএম সুলতানের মন্তব্য ছিল-- ‘আমার সব অভাবেরই পরিসমাপ্তি ঘটেছে’।

১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন কালজয়ী শিল্পী এসএম সুলতান।

পুরো নাম শেখ মোহাম্মদ সুলতান। জন্ম নড়াইল জেলার মসিমদিয়া গ্রামে, ১৯২৩ সালে। বাবার সহযোগী হিসেবে রাজমিস্ত্রির কাজ করার সময় আঁকাআঁকিতে হাতেখড়ি। পরে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ হয় কোলকাতার আর্টস্কুলে। সেখানেই তার শিল্পীসত্ত্বার বিকাশ। তুলির আঁচড়ে একের পর এক উঠে আসতে থাকে অসাধারণ সব শিল্পকর্ম। মাঠ-ঘাট, সবুজ প্রকৃতি আর নারী-পুরুষের পেশীবহুল অবয়ব মুর্ত হয়ে ওঠে ক্যানভাসে।

নড়াইলে নানা কর্মসুচির মধ্যদিয়ে পালিত হচ্ছে শিল্পী সুলতানের ২২তম মৃত্যুবাষির্কী। সকাল ৭টায়  চিত্রাপাড়ে সুলতানের বাসভবন শিশুস্বর্গ মাছিমদিয়ায় কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে কর্মসুচির শুরু।  নড়াইল জেলা প্রসাশন ও এসএম সুলতান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে আছে  কোরানখানি ও মিলাদ মাহফিল, শিল্পীর মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পন, মাজার জিয়ারত, শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, আলোচনা ও পুরস্কার বিতরন।

নড়াইলে মহান এ শিল্পীর স্মৃতিকেন্দ্রে কোনোরকমে ধরে রাখার চেষ্টা হচ্ছে সুলতানের শিল্পকর্ম। তবে তাঁর স্বপ্নের শিশুস্বর্গের পূর্ণ বাস্তবায়ন এখনো হয়নি। শিল্পীর প্রয়াণের এই দিনে সুলতান-স্বপ্ন শিশুস্বর্গের পূর্ণ বাস্তবায়ন চান ভক্ত অনুসারীরা। 

এসজডে

 

 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়