logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭

দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মীদের টিকাদান শুরু

দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মীদের টিকাদান শুরু
ফাইল ছবি

দৌলতদিয়ার যৌনকর্মীরা টিকা পেতে শুরু করেছেন। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এ যৌনপল্লিতে একটি আলাদা টিকাদান কেন্দ্র খোলারও পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি করোনার টিকা নিয়েছেন দৌলতদিয়ার যৌনপল্লীর এক বাসিন্দা৷ যদিও শুরুতে তেমন একটা আগ্রহ ছিল না তার৷ টিকা নিলে মানুষ মারা যায় এমন কথাও শুনেছিলেন তিনি৷ পরে জেনেছেন সেটি গুজব৷

আরও পড়ুন : দুই সপ্তাহ সময় পাবে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা

ওই নারী বলেন, স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন৷ যেহেতু প্রতিদিন অনেক মানুষের কাছাকাছি আসি আমরা সে কারণে টিকা নেয়ার গুরুত্বটা বুঝতে পেরেছি।

দৌলতদিয়ার যৌনপল্লীতে টিকা নেয়া শতাধিক বাসিন্দার একজন তিনি৷

গেল ৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে৷ এরই মধ্যে প্রায় ৩০ লাখের মতো মানুষ টিকা নিয়েছেন৷ সাধারণত চল্লিশোর্ধ্বরা অনুমতি পেলেও দৌলতদিয়ার যৌনকর্মীদের ক্ষেতে বয়সসীমাও শিথিল করেছে কর্তৃপক্ষ৷

আরও পড়ুন : কাজীর ভুলে দম্পতির সর্বনাশ

সেখানকার প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, যৌনকর্মীদের টিকাদান জরুরি হয়ে পড়েছে, কেননা প্রতিদিন হাজারো মানুষ যৌনপল্লীতে আসেন৷ এখানকার যৌনকর্মীরা ভাইরাসের অন্যতম ঝুঁকিতে রয়েছেন৷

আসিফ মাহমুদ জানান, বর্তমানে দৌলতদিয়া থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরের একটি ক্লিনিকে গিয়ে টিকা নিতে হচ্ছে তাদের৷ তবে যৌনপল্লীতেই একটি টিকাদান কেন্দ্র খোলার পরিকল্পনা রয়েছে।

দৌলতদিয়ার প্রধান চিকিৎসক মোহাম্মদ ইব্রাহিম জানান, সবাই যেন টিকা নিতে আগ্রহী হয় সেজন্য পল্লীতে বিভিন্নভাবে প্রচারও চালাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন : ধান চুরি করেছে ভাগ্নে, মামাকে কুপিয়ে হত্যা

গত মার্চে লকডাউন আরোপের সময় দৌলতদিয়ায় বাইরের কারো প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়৷ এর ফলে আর্থিক সংকটে পড়েন যৌনকর্মীরা৷ তবে টিকা কার্যক্রমের কারণে পরিস্থিতি বদলাবে বলে আশা তাদের৷

সেখানকার একটি নেতৃস্থানীয় সংগঠনের প্রধান ঝুমুর বেগম বলেন, দৌলতদিয়ায় কেউ আসলে করোনা আক্রান্ত হতে পারেন এমন ভয় এখন দূর হবে৷

সেখানে এখন প্রায় এক হাজার ৯০০ যৌনকর্মী বসবাস করেন৷ দৌলতদিয়াসহ বাংলাদেশে অন্তত এগারোটি যৌনপল্লী চালু রয়েছে৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS