• ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬

আইপিইউ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

'সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বৈশ্বিক সমস্যা'

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০১ এপ্রিল ২০১৭, ২১:০৪ | আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০১৭, ১২:৪০
বিশ্বে ৮০০ মিলিয়ন মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছে। বিদ্যালয়ে যেতে পারছে না। খেতে পারছে না। বাসস্থান নেই। এরই মধ্যে নতুন সমস্যা এসেছে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বৈশ্বিক সমস্যা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। এটা আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলা করতে হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

whirpool
বাংলাদেশে ইন্টার-পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) ১৩৬তম সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বিভিন্ন ফোরামে আলোচনা হয়েছে। এটাও আমাদের বড় একটা সমস্যা। এ নিয়েও আমাদের কাজ করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, গণতন্ত্র শুধু ব্যবস্থা না। উন্নয়নের পথ। বাংলাদেশে কঠিন ছিল গণতন্ত্র অর্জন। বঙ্গবন্ধু গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছেন। জেল জুলুম সহ্য করেছেন। সত্তরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয় পেলেও ক্ষমতায় যেতে দেয়নি পাকিস্তান। যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়া হয় আমাদের ওপর। গণহত্যা শুরু হয় ২৫ মার্চ। ৩০ লাখ মানুষ শহীদ ও দু'লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে স্বাধীনতা পাই আমরা।

তিনি বলেন, কিন্ত দেশ স্বাধীন হবার পরেও দেশে নতুন ষড়যন্ত্র শুরু হয়। বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। বেঁচে যাই, আমি আর আমার ছোট বোন। সামরিক শাসন জারি করা হয়। কিন্তু আমরা থেমে থাকিনি। দেশের বাইরে থেকেই দেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে কাজ করি। একাশিতে ফিরে আসি। লড়তে থাকি। জনগণের অধিকারের জন্য সংগ্রাম করি। এজন্য কারাবরণ করতে হয়েছে। গ্রেনেড হামলার সম্মুখীন হতে হয়েছে। ফলশ্রুতিতে আমরা ধারাবাহিকতা রাখতে সক্ষম হয়েছি।

 

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের উন্নীত হয়েছে। আমরা আশাবাদী, ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশে আমরা উন্নীত হবো। ২০৪১ সালে উন্নত দেশ হবো। সেজন্য সবার সহযোগিতাও লাগবে।শনিবার সকালে নারীর ক্ষমতায়নে 'ফোরাম অফ ওম্যান পার্লামেন্টারিয়ান’ শীর্ষক বৈঠকের মধ্যদিয়ে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ সম্মেলন শুরু হয়। 

এসময় তিনি স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন ও আইপিইউ ওয়েবটিভিও উদ্বোধন করেন।

সম্মেলনের উদ্বোধন উপলক্ষে সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় বর্ণিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নেয়া হয় নজিরবিহীন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সম্মেলনের অন্যান্য ইভেন্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ও আইপিইউএর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ সম্মেলনের সভাপতি জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এ বারের সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য ‘বৈষম্যের প্রতিকার : সবার জন্য মর্যাদা ও কল্যাণ নিশ্চিত।’

সম্মেলনে ১৬৪টি প্রতিনিধিদল অংশগ্রহণ করছেন। যার মধ্যে ১৩২টি সংসদীয় প্রতিনিধি দল। বাকিরা পর্যবেক্ষক ও সহযোগী প্রতিষ্ঠান। সম্মেলনে ৪৫ জন স্পিকার এবং ৩৭ জন ডেপুটি স্পিকার অংশ নিয়েছেন। তবে পাকিস্তানসহ ৬টি দেশ সম্মেলনে অংশ নেয়নি। আইপিইএর ১৩৮ বছরের ইতিহাসে এবারের অনুষ্ঠানটি হচ্ছে গ্রিন কনফারেন্স।

১৯৭২ সালে রোমে অনুষ্ঠিত আইপিইউ কাউন্সিলে অংশ নেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশ আইপিইউতে যুক্ত হয়।

এসজে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়