logo
  • ঢাকা শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করলেন কুষ্টিয়ার এসপি

Unconditional apology in the court of SP of Kushtia
কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত

জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে দুর্ব্যবহার করায় কুষ্টিয়ার আলোচিত পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত হাইকোর্টে এসে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। এসময় কুষ্টিয়ার এসপিকে সেই প্রিজাইডিং অফিসারের সার্বিক নিরাপত্তা দিতে বলেছেন হাইকোর্ট। এসময় এক ঘণ্টা আদালতে দাঁড়িয়ে থাকেন কুষ্টিয়ার এসপি।

সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে ‘দুর্ব্যবহার’ করায় সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে নিজের ব্যাখ্যা দিতে সশরীরে হাইকোর্টে উপস্থিত হন। হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এসপির ব্যাখ্যার শুনানি করেন।

এ সময় আদালত বলেন, মানুষ যেন পুলিশি রাষ্ট্র মনে না করে সেটি মাথায় নিয়ে দায়িত্ব পালন করবেন। আপনাকে কাজে দক্ষ হতে হবে কথায় নয়। আপনারা মানুষের নিরাপত্তা দেবেন। কেউ যেন পুলিশের কাছে অনিরাপদ বোধ না করে।

আদালত আরও বলেন, পুলিশ যাতে মানুষের বন্ধু হয় সেটা করতে হবে। কে কোন দল, আদর্শ সেটা বিবেচনা করার দায়িত্ব পুলিশের নয়। সমাজকে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে নিয়ে যেতে হবে। আইনের শাসন ও বিচার ব্যবস্থা একা পূর্ণাঙ্গতা পায় না। রাষ্ট্রের সব অঙ্গ এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। জুডিশিয়ালির মর্যাদা রক্ষা করা সবার দায়িত্ব।

কুষ্টিয়ার এসপি এসএম তানভীর আরাফাত গতকাল রোববার (২৪ জানুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবীর মাধ্যমে দুর্ব্যবহারে অভিযোগের বিষয়ে অনুতপ্ত হয়ে আদালতের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার আবেদন করেন।

আবেদনে বলেন, তিনি ম্যাজিস্ট্রেটকে চিনতে পারেননি। তাই এমন অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। ভবিষ্যতে তিনি দায়িত্ব পালনে আরও সতর্ক হবেন। এ ধরনের ভুল আর কখনও হবে না।

সোমবার সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে আদালতে শুনানি শুরু হয়। এতে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হন এসপি তানভীরের পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী মুনসুরুল হক চৌধুরী। তার আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এসপি এস এম তানভীর আরাফাত হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে এসে উপস্থিত হন।

পি

RTV Drama
RTVPLUS