logo
  • ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

এএসপি আনিসুল হত্যা মামলায় ডা. মামুনের জামিন

ASP treatment, Dr. Mamun National Institute of Mental Health
এএসপি আনিসুল করিম শিপন হত্যার চিত্র
রাজধানীর আদাবরে ‘মাইন্ড এইড’ নামের মানসিক হাসপাতালে এএসপি আনিসুল করিম শিপন হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ রোবার (২২ নভেম্বর) বিকেলে এ তথ্য জানা গেছে।

ডা. মামুন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের রেজিস্ট্রার হিসেবে দায়িত্বের রয়েছেন। আজ রোববার (২২ নভেম্বর) ঢাকা মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মন্ডলের আদালতে তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিন মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ১৭ নভেম্বর ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুনের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে ২০ নভেম্বর তাকে আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আদাবর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) ফারুক মোল্লা। তখন ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ৯ নভেম্বর দুপুর পৌনে ১২টায় মানসিক সমস্যার কারণে হাসপাতালে আসেন এএসপি আনিসুল করিম। অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালটিতে ভর্তির কিছুক্ষণ পরই মারা যান তিনি। হাসপাতালের অ্যাগ্রেসিভ ম্যানেজমেন্ট রুমে তাকে মারধরের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন মাধ্যমে।

দীর্ঘক্ষণ অচেতন থাকার পরও তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়নি। কিছুক্ষণ পর ১২টার দিকে মাইন্ড এইড হাসপাতালের লোকজন তাকে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে নিয়ে যায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে নেয়ার আগেই মৃত্যু (ব্রট ডেথ) হয় আনিসুলের।

এ ঘটনায় আনিসুলের বাবা বাদী হয়ে আদাবর থানায় ১৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। ওই মামলা তদন্তে নেমে সম্পৃক্ততা পাওয়ায় ডা. মামুনকে গ্রেপ্তার করে আদাবর থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশিদ সংবাদ সম্মেলন করে বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।

কেএফ

RTVPLUS