logo
  • ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

টিকটক, লাইকি ও বিগো লাইভ অ্যাপ নিষিদ্ধে নোটিশ

Notice banning TickTock, Likei and Bigo Live apps, news today
সংগৃহীত
মোবাইল ফোনের জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক, লাইকি ও বিগো লাইভ নিষিদ্ধ ঘোষণার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারকে নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী মো. জে আর খাঁন রবিন। বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে স্বরাষ্ট্র সচিব, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি সচিব, তথ্য সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান বরাবরে এ নোটিশ পাঠান তিনি।

সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী বলেন, এসব অ্যাপ ব্যবহারে তরুণ প্রজন্মকে বিপথগামী হচ্ছে। নৈতিকতা, সামাজিক মূল্যবোধ ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ নষ্ট হচ্ছে। তরুণ বা কিশোর গ্যাংয়ে জড়িয়ে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে অংশ নিচ্ছে। সহিংস হয়ে উঠছে। এসব অ্যাপসের মাধ্যমে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করতে চায় এবং নিজেকে অনেকে জনপ্রিয় ভাবতে শুরু করে।

টিকটকের বিষয়ে জে আর খাঁন রবিন বলেন, এর মাধ্যমে অনেক কিশোর-তরুণ উদ্ভট রঙে চুল রাঙিয়ে এবং ভিনদেশি অপসংস্কৃতি অনুসরণ করে ভিডিও তৈরি করছেন। এসব ভিডিওতে সহিংস ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট থাকে। স্বল্প বসনা তরুণীরা টিকটকে অশ্লীল ভিডিওতে নাচ, গান ও অভিনয়ের পাশাপাশি নিজেদের ধূমপান ও সিসা গ্রহণ করার ভিডিও আপলোড করেছেন।

আরও পড়ুনঃ

মানুষ ধর্ষণবিরোধী ভ্যাকসিন চায়: গয়েশ্বর

এক বছর পর হাসপাতাল থেকে কারাগারে সম্রাট

গৃহবধূকে র্ধষণের অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

তিনি বলেন, এরই মধ্যে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া টিকটক ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে। সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, এ অ্যাপগুলোর মধ্যে এক ধরনের শো-অফের বিষয় থাকে।

এদিকে বিগো-লাইভ অ্যাপের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা ও যৌনতার ফাঁদ তৈরি করে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনা ঘটছে বলেও জানান তিনি। প্রতারক চক্রের ফাঁদে পড়ে অনেক তরুণ আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এসব অ্যাপের ক্ষতিকর দিক বিবেচনা করে ভারত ও পাকিস্তান এ অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে।

অন্যদিকে এ নোটিশ পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে টিকটক, লাইকি ও বিগো লাইভ অ্যাপস বন্ধ করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তা না হলে হাইকোর্টে রিট দায়ের করবেন বলেও জানিয়েছেন জে আর খাঁন রবিন।

এ/এম 

RTVPLUS