আম্পায়ারকে ‘চোর’ বললেন সেরেনা

প্রকাশ | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:৫৭ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:৪৮

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

সেরেনা উইলিয়ামসের ঘরের মাটিতে দাঁড়িয়ে তাকে পরাস্ত করে দেশের ও নিজের হয়ে প্রথমবার গ্র্যান্ডস্লাম জিতলেন নাওমি ওসাকা। ইউএস ওপেন ফাইনালে মার্কিন টেনিস তারকাকে হারিয়ে প্রথম জাপানি খেলোয়াড় হিসাবে গ্র্যান্ডস্লাম জিতলেন তিনি।

এদিন সেরেনাকে ৬-২, ৬-৪ ব্যবধানে হারিয়ে দেন ২০ বছর বয়সী এই তরুণী। নিয়ম ভাঙায় সেরেনাকে পর্তুগিজ আম্পায়ার শাস্তি দেন। যার ফলে নাওমির সুবিধা হয়েছে। খেলার পরও স্টেডিয়ামে থাকা দর্শকরা যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না। 

আম্পায়ার কার্লোস রামোসকে অনেক দর্শক বিদ্রুপ করাও শুরু করেন। পরে ৩৬ বছর বয়সী সেরেনাও আম্পায়ারকে কটাক্ষ করেন। প্রথমে কোচ প্যাট্রিক মৌরাটোগলোও থেকে ইশারায় কোচিং নেয়ার অভিযোগে সেরেনাকে সতর্ক করা হয়। 

এসময় ২৪টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জেতা এই তারকা বলেন- ‘জয়ের জন্য আমি কখনোই চুরি করবো না এবং পরিস্থিতির জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

দ্বিতীয়বার মেজাজ হারিয়ে র‌্যাকেট ভেঙে ফেলায় দ্বিতীয় কোড ভাঙেন সেরেনা। ফলে নাওমি পেনাল্টি পয়েন্ট পান। তারপরে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করায় গেম পেনাল্টি দেয়া হয়।

এসময় আম্পায়ারকে ‘চোর’ বলে সম্বোধন করে সেরানা বলেন- ‘তুমি আমার থেকে পয়েন্ট চুরি করেছে’।

ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের কাছে লিঙ্গ বৈষম্যের বিষয়টিও সামনে নিয়ে আসেন এই টেনিস তারকা।

তিনি বলেন, নারীদের জন্য লড়াই চালিয়ে যাব। সমান অধিকারের জন্য লড়াই করবো। হয়তো আমার জন্য হবে না। কিন্তু পরবর্তীতে যারা আসবে তারা এর সুফল পাবে।

এদিকে ওসাকা শুরু থেকেই নিজের খেলা ধরে রেখেছিলেন এবং শেষ পর্যন্ত ট্রফি জিতে বিজয়ী হিসেবে ৩.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার নিজের করে নেন।

আরও পড়ুন :

ওয়াই/পি