বধিরদের নিয়ে ওয়ালটনের ত্রিদেশীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

প্রকাশ | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:০৬ | আপডেট: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:৩৫

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানকে নিয়ে ঢাকায় বসছে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি বধির ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। টুর্নামেন্টটি আয়োজন করছে বাংলাদেশ বধির স্পোর্টস ফাউন্ডেশন। টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করছে দেশের স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইলস, হোমঅ্যাপ্লায়েন্স ও টেলিকমিউনিকেশন পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ।

আগামী ১৪ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ডাবল লিগ পদ্ধতিতে ফাইনালসহ মোট ৭টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি ম্যাচে ম্যাচ সেরার পুরস্কার দেবে ওয়ালটন গ্রুপ। টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন দল ট্রফিসহ পাবে ৫০ হাজার টাকা এবং রানার্সআপ দল ট্রফির সঙ্গে পাবে ২৫ হাজার টাকা।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : এশিয়া কাপে পেস নির্ভর পাকিস্তান
-------------------------------------------------------

টুর্নামেন্টে সম্পৃক্ত হওয়ার কারণ জানাতে গিয়ে ওয়ালটন গ্রুপের ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম বলেন, বধিরদের ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে ওয়ালটন গ্রুপ স্পন্সর করার প্রধান কারণ দুটি। 

প্রথমত, ওয়ালটন গ্রুপ এমনিতেই দেশের সবধরনের খেলাধুলার সঙ্গে সম্পৃক্ত। আমরা চাই তরুণ, কিশোর, যুবক এরা সবাই খেলাধুলায় আগ্রহী হোক। তাহলে মন্দ যেসব চর্চা যেমন মাদক, অতিরিক্ত সাইবার আসক্তি এসব থেকে তারা দূরে থাকবে। খেলাধুলায় আগ্রহী হলে তরুণরা শারীরিকভাবে সুস্থ থাকবে পাশাপাশি সুস্থ মানসিক বিকাশ হবে। তখন শিক্ষা ও কাজে বেশি মনোযোগী হতে পারবে। এজন্য ওয়ালটন পরিবার খেলাধুলাকে সবসময় প্রাধান্য দিয়ে থাকে। 

দ্বিতীয়ত, এটা হচ্ছে করপোরেট স্যোশাল রেসপনসিবিলিটি (সিএসআর)। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমরা এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছি। বধিররা সমাজে পিছিয়ে পড়া শ্রেণি। তাদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের সামাজিক দায়িত্ব।

টুর্নামেন্টের আয়োজন নিয়ে বাংলাদেশ বধির স্পোর্টস ফাউন্ডেশনের ম্যানেজার ও সমন্বয়ক আনিসুল ইসলাম নিপু বলেছেন, আগামী নভেম্বরে দিল্লিতে বধিরদের অংশগ্রহণে বিশ্বকাপ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। আমাদের দলও সেখানে খেলবে। আমরা নিয়মিত অনুশীলন করছি। এবার তাই ভারত ও পাকিস্তানকে নিয়ে একটা টুর্নামেন্ট আয়োজন করছি। ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে এবং নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার সুযোগ পাবে। আমাদের কোথায় কোথায় ঘাটতি আছে সেটাও আমরা দেখতে পারব।

পৃষ্ঠপোষক ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা যখন টুর্নামেন্টের প্রস্তাব ওয়ালটন গ্রুপকে দেই তারা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে আমাদের প্রস্তাব গ্রহণ করে। এমনিতেই তারা ক্রীড়া বান্ধব প্রতিষ্ঠান। তাদের আলাদা সুনাম রয়েছে। টুর্নামেন্টে স্পন্সর হওয়ায় ওয়ালটনকে ধন্যবাদ। তাদের অংশগ্রহণের কারণে টুর্নামেন্টটি আলাদাভাবে নজর কাড়বে এবং খেলোয়াড়রাও উৎসাহিত হবে।  

আরও পড়ুন : 

এএ/পি