দ্বাদশ সাফ ফুটবলের লোগো উন্মোচন

প্রকাশ | ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:২৫ | আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:২১

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

দীর্ঘ নয়বছর পর আবার বাংলাদেশের মাঠে গড়াচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপখ্যাত সাফ ফুটবলের আসর। সাফের ইতিহাসের এবারের আসরটি ১২তম। এ আসরের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সুজুকি। পাওয়ার স্পন্সর হয়েছে অ্যাননটেক্স। টুর্নামেন্টের নামকরণ করা হয়েছে সাফ সুজুকি কাপ-২০১৮ পাওয়ার্ড বাই অ্যাননটেক্স।

মঙ্গলবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বিকেল ৪টায় পাকিস্তান বনাম নেপালের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে সাফের ১২তম আসরের যাত্রা। সন্ধ্যা ৭টায় স্বাগতিক বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ভুটান। বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার সাতটি দেশকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে এবারের আসর। ৭টি দেশ দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে। স্বাগতিক বাংলাদেশের সঙ্গে এ গ্রুপে লড়বে নেপাল, পাকিস্তান ও ভুটান। বি গ্রুপে লড়বে ভারত শ্রীলংকা ও মালদ্বীপ।এদিকে ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন ও সাফের সবশেষ তিন আসরের ফাইনালিস্ট আফগানিস্তান সাফ অঞ্চল থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় টুর্নামেন্টে নেই।

আগামীকাল থেকে শুরু হয়ে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এই টুর্নামেন্ট। সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ভবনে (বাফুফে) উন্মোচন করা হয় সাফ ফুটবলের লোগো। এবারের আসরের লোগো উন্মোচন করেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। এ সময় বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাফের টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী, অ্যাননটেক্স গ্রুপের ডিরেক্টর মো. আনোয়ারুল ইসলাম ফেরদৌস, উপদেষ্টা শ্যামল দত্ত, অফিসিয়াল গ্রাউন্ড রাইটস হোল্ডার অ্যাডটাচের সিইও নাওয়াজ সোহাগ উপস্থিত ছিলেন।

এবারের প্রতিটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (সাফ) চ্যাম্পিয়নশিপের মধ্য দিয়ে টেলিভিশন সম্প্রচার যাত্রা শুরু করবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রতিটি খেলা দেখাবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নাইন।

১৯৯৩ সালে পাকিস্তানের লাহোর থেকে সার্ক গোল্ডকাপ নামে দক্ষিণ এশিয়ার এ টুর্নামেন্টে যাত্রা শুরু হয়। বাংলাদেশ প্রথম আসরে খেলেনি। মাঝে দুই বছরের বিরতি দিয়ে দ্বিতীয় আসর বসে শ্রীংকার কলম্বোয়। বাংলাদেশ সে আসরে অংশ নিয়ে সেমিফাইনালে ভারতের কাছে পরাজিত হয়ে বিদায় নেয়। 
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : সাফ ফুটবলের জন্য বাংলাদেশ দল ঘোষণা
-------------------------------------------------------

নেপালে অনুষ্ঠিত তৃতীয় আসর থেকে টুর্নামেন্টের নাম পরিবর্তন করে করা হয় ‘সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (সাফ)’ গোল্ডকাপ। ওই আসরে বাংলাদেশ প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নেয়। ১৯৯৯ সালে ভারতের গোয়ায় অনুষ্ঠিত আসরে বাংলাদেশ ফাইনালে উঠেছিল প্রথমবারের মতো। কিন্তু ভারতের কাছে পরাজিত হয়ে শিরোপার স্বপ্নভঙ্গ হয়। অবশেষে ২০০৩ সালে নিজ দেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত আসরে শিরোপার স্বপ্ন পূরণ হয়। ওই আসরে বাংলাদেশ ফাইনালে মালদ্বীপকে টাইব্রেকারে পরাজিত করে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। 

এরপর ২০০৫ সালে পাকিস্তানের করাচিতে বাংলাদেশ ফাইনাল খেললেও মাঝে পাঁচ আসরে লাল-সবুজের জার্সিধারীরা ছিল চরম ব্যর্থ। এরমধ্যে ২০০৯ সালে স্বাগতিক হওয়ার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। ওই আসরে সেমিফাইনালে পা রাখতে সক্ষম হয়। এরপর থেকে প্রতিটি আসরেই যাচ্ছেতাই অবস্থা বাংলাদেশের ফুটবলের দলের। 

আরও পড়ুন :

এএ/এ