• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

সন্ধ্যায় উ. কোরিয়ার মুখোমুখি আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৪ আগস্ট ২০১৮, ০৯:০৯ | আপডেট : ২৪ আগস্ট ২০১৮, ১২:০২
এশিয়ান গেমসে শক্তিশালী কাতারকে শেষ মুহূর্তে জামাল ভূইয়ার করা গোলে পরাজিত করে ফুটবলে ইতিহাস সৃষ্টি করে নক আউট পর্বে ওঠে বাংলাদেশ। আজ সেই আত্মবিশ্বাসকে সঙ্গে নিয়েই নক আউট পর্বে আরেক শক্তিশালী দল উত্তর কোরিয়ার বিপক্ষে নামবে লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। 

আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ইন্দোনেশিয়ার চিকারাংয়ের উইবাওয়ার মুক্তি স্টেডিয়ামের মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ বনাম ‍উত্তর কোরিয়ার ম্যাচটি।

বাংলাদেশ দল নক আউট পর্ব খেলবে এমন বিশ্বাস খোদ বাফুফেরই ছিল না। যার ফলে তারা ইন্দোনেশিয়া থেকে দেশে ফেরার ২১ আগস্টের টিকেট করে রাখে। কাতারের বিপক্ষে জয় পাওয়ায় পরবর্তীতে সেই টিকিট বাতিল করে কর্তৃপক্ষ। 

মাঠের পারফর্ম-পরিসংখ্যান কিংবা ফিফা র‌্যাংকিং- সব দিক দিয়েই বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে উত্তর কোরিয়া। বাংলাদেশ ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১৯৪ অন্যদিকে উত্তর কোরিয়ার র‌্যাংকিং ১০৮। এশিয়ান গেমসের গত আসরের রানার্সআপ উত্তর কোরিয়া। ডিফেন্ডিং রানার্সআপদের বিপক্ষে লড়াই সহজ হবে না। তবুও আত্মবিশ্বাসী কাতারের বিপক্ষে গোল পাওয়া জামাল ভূইয়া। তাই তো গতকাল অনুশীলন শেষে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক বলেন, এটা আমাদের জন্য আরেকটি ম্যাচ। আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমরা হয়তো একাধিক সুযোগ পাবো না। চাপে থাকব। কিন্তু যখনই সুযোগ পাবো সেটা কাউন্ট করার চেষ্টা করবো।

কাতারকে হারিয়ে ফুরফুরে মেজাজে রয়েছে বাংলাদেশ দল। কোচ জেমি ডেও মনে করেন উত্তর কোরিয়াকেও হারানো সম্ভব। তাই তিনি ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমরা কাতারের বিপক্ষে যেভাবে খেলেছি তার থেকেও ভালো খেলতে হবে। আমরা গোলমুখে যদি আরেকটু গোছানো ফুটবল খেলতে পারি তাহলে আমাদের পক্ষে অনেক কিছু করা সম্ভব। আমাদেরও সুযোগ থাকবে ভালো কিছু করার।

বাংলাদেশ দলের ডিফেন্ডার তপু বর্মন জানান, নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে খেললে উত্তর কোরিয়াকে হারানো সম্ভব। আর সেই লক্ষ্যেই খেলবেন তারা। প্রতিপক্ষ হিসেবে উত্তর কোরিয়া অনেক ভালো দল এটা সবাই জানে। কিন্তু আমরা সবাই নিজেদের সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করব তাদের হারাতে। 

দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচ সামনে রেখে গত কয়েক দিন ধরে অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছেন বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা। ম্যাচটি ঘিরে বেশ রোমাঞ্চিত লাল-সবুজরা।

দুবার বিশ্বকাপ খেলা উত্তর কোরিয়া টেকটিক্যালি এগিয়ে রয়েছে এটা মেনে নিয়েই মিডফিল্ডার সাখাওয়াত রনি বলেন, বাংলাদেশ এখন জয়ের ধারায় রয়েছে, তারা সেটা ধরে রাখতে চেষ্টা করবেন। এটা যেহেতু নক আউট পর্ব, যে কেউই জিততে পারে এখানে।  

সবশেষ বাংলাদেশ উত্তর কোরিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল ১৯৯৮ সালে। ৫-১ গোলে হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সব মিলিয়ে পাঁচবার সাক্ষাৎ হয়েছে দুই দলের। চার ম্যাচে হার মানে বাংলাদেশ, আর একটি ম্যাচ ড্র। ১৯৮৮ সালের ১ এপ্রিল আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে গোলশূন্য ড্রই ছিল উত্তর কোরিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সেরা সাফল্য।

১৬ দল নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে এশিয়ান গেমসের দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলা। এই নক আউট পর্বে বাংলাদেশের গ্রুপে আছে ইরান, উত্তর কোরিয়া ও সৌদি আরব। বাংলাদেশ দ্বিতীয় রাউন্ড পেরুতে পারলে কোয়ার্টার ফাইনালে পাবে স্বাগতিক ইন্দোনেশিয়া অথবা সংযুক্ত আরব আমিরাতকে।

বাংলাদেশ কি পারবে আরেকটি চমক দিতে? সে চমকের প্রত্যাশা নিয়েই তাকিয়ে রয়েছে বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তরা। 

এএ/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়