• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

‘ক্রোয়েশিয়া খেলছে বিশ্বকাপ ফাইনাল আমরা খেলছি হিন্দু-মুসলিম’

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৭ জুলাই ২০১৮, ১২:৩৯ | আপডেট : ১৭ জুলাই ২০১৮, ১৪:৪৬
১৯৫০ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত হয় বিশ্বকাপ। ফুটবলে বিশ্ব সেরা হবার লড়াইয়ের চতুর্থ আসরের লড়াইয়ে অংশ নেয় ১৬টি দল। সেবারই প্রথম মহাযজ্ঞে খেলার সুযোগ পায় ভারত। বিশ্বকাপ থেকে অলিম্পিককে বেশি গুরুত্ব দেয়ার কারণ আর অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের (এআইএফএ) খামখেয়ালির কারণেই বিশাল সুযোগটি থেকে বঞ্চিত হয় ভারতীয়রা। 

শেষ হয়েছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। ৬৮ বছর পর ফুটবলের বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই টুর্নামেন্ট ‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ হিসেবে পরিচিত পেয়েছে। যেখানে দক্ষিণ আমেরিকা আর ইউরোপিয়ান দলগুলো ছাড়া কেউই শিরোপা নিতে পারছে না। এদিকে এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে বেশ কয়েকটি দল মূল পর্বে খেলার সুযোগ পেলেও সর্বোচ্চ সেমিফাইনাল পর্যন্ত যেতে সক্ষম হয় দক্ষিণ কোরিয়া। ২০০২ সালে স্বাগতিক দল হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করে। অন্যদিকে দক্ষিণ এশিয়ার কোনও দলই মূল পর্বে খেলার ধারে কাছেও নেই।

বিশ্বকাপের একুশতম আসরের ফাইনালে উঠে সবার বিশেষ নজর কেড়েছে ক্রোয়েশিয়া। ১৯৯৮ সালে প্রথমবারের মতো খেলতে এসেই সেমিতে এসে থামতে হয়েছিল ক্রোয়েটদের।

ভারতীয় দল এখনও পর্যন্ত একবারও বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলতে না পারলেও, নব্বইয়ের দশকে স্বাধীন হওয়া ইউরোপিয়ান দেশটি পঞ্চমবার বিশ্বকাপ খেলে ফেললো। 

লুকা মদ্রিচ নেতৃত্বাধীন দলটির খেলা দেখেই ভারতীয় ফুটবলের অবস্থা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্রিকেটার হরভজন সিং।

আয়তন ও জনসংখ্যার দিক থেকে ভারতের চেয়ে অনেক পিছিয়ে থাকা দেশ ক্রোয়েশিয়ার বিশ্বকাপ ফুটবলে এমন সাফল্য দেখে আফসোস করছেন হরভজন। 

২০১১ সালে দেশটির হয়ে ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী এই তারকা টুইটার পোস্টে বলেন, ৫০ লাখ মানুষের দেশ ক্রোয়েশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলছে আর আমাদের দেশের ১৩৫ কোটি মানুষ হিন্দু-মুসলমান খেলছি। ভাবনা বদলাতে হবে, তবেই দেশ বদলাবে।

আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থার (ফিফা) র‌্যাংকিংয়ে ৯৭ নম্বরে অবস্থান করছে ভারত। গত তিন বছরে দেশটির ফুটবল পারফরমেন্স চোখে পড়ার মতো। ২০১৪ সালে ১৭১ নম্বর থেকে বর্তমান অবস্থানে উঠে এসেছে।

২০১৭ ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের আয়োজন করে দেশটি। ফুটবল বিশ্বকাপের মূল পর্ব নিশ্চিত করতে উঠে পড়েই লেগেছে ভারতীয়রা।

ওয়াই/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়