• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

ফাইনালে প্রযুক্তির জয় (ভিডিও)

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ জুলাই ২০১৮, ১১:৩৯ | আপডেট : ১৬ জুলাই ২০১৮, ১২:৫৯
রাশিয়া বিশ্বকাপের সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয়টি ছিল ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারি যা ভিএআর হিসেবে পরিচিত। ফুটবলের সবচেয়ে বড় এই আসরটি রেকর্ডের জন্যই স্মরণীয় হয়ে থাকবে। এটা টুর্নামেন্ট শুরুর পরপরই বোঝা গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত যে এতগুলি ভিন্ন ধরনের রেকর্ড হবে তা কেউ ভাবেননি। ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া ফাইনালেই যেমন নতুন রেকর্ড হয়ে রইল। ভিএআরের মাধ্যমে এই ম্যাচে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিলেন রেফারি।

রেফারি ছিলেন আর্জেন্টিনার নেস্তর পিতানা। ম্যাচের ৩৮ মিনিটের মাথায় ইভান পেরিসিচের হাতে বল লাগে ক্রোয়েশিয়া বক্সে। হাতে বল ইচ্ছাকৃত লেগেছে না অনিচ্ছাকৃত তা নিয়ে অনেক বিতর্ক চলেছিল মাঠেই। তবে সেই ঘটনায় রেফারি পিতানা পেনাল্টি দেন। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ফ্রান্সকে ২-১ গোলে এগিয়ে দেন আতোঁয়া গ্রিজম্যান। ফলে ক্রোয়েশিয়া প্রথম দুটি গোল খায় নিজেদের ভুলেই। 
--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : চোখের জল ধুয়ে গেলো বৃষ্টিতে
--------------------------------------------------------

প্রথমে ১৮ মিনিটে মারিও মানদুজুকিচ আত্মঘাতী গোল করেন। তারপরে ৩৮ মিনিটে পেরিসিচের হাতে বল লেগে পেনাল্টি হয়। 

৩৭ তম মিনিটে ফ্রান্স কর্নার পেয়েছিল। সেই শট নেন গ্রিজম্যান। বল ক্লিয়ার করতে গিয়েই তা পেরিসিচের হাতে লাগে। পেনাল্টি হয়। রেফারি পিতানা প্রথমে গোল কিকের নির্দেশ দেন। তবে ফ্রেঞ্চ ফুটবলাররা এই আর্জেন্টাইনকে বোঝাতে সক্ষম হয় যে, ভিএআর দেখার প্রয়োজন রয়েছে এক্ষেত্রে। তখন পিতানা বাইরে বেরিয়ে ভিডিও দেখে সিদ্ধান্ত পাল্টে পেনাল্টি দেন।

নির্ধারিত ৯০ মিনিট পর্যন্ত ক্রোয়েটদের বিপক্ষে ম্যাচটি ৪-২ গোলে জিতে নেয় দিদিয়েরন দেশমের শিষ্যরা। এতে ১৯৯৮ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো নিজেদের ঘরে তুলল লস ব্লুসরা।

 

আরও পড়ুন  : 

ওয়াই/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়