• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

এসকোবারের মতো পরিণতি হবে কলম্বিয়ান ফুটবলারদের?

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৫ জুলাই ২০১৮, ১৫:০৮ | আপডেট : ০৫ জুলাই ২০১৮, ১৫:৩১
প্রতি চার বছর পর বিশ্বকাপ শুরু হলেই আন্দ্রে এসকোবারের কথা সবার সামনে চলে আসে। যে ফুটবল বেঁচে থাকার জন্য নতুন আনন্দের মাত্রা জোগায় লাখো মানুষকে, সেই ফুটবলের কারণেই প্রাণ গিয়েছিল কলম্বিয়ান ডিফেন্ডারের। 

১৯৯৪ সালে এসকোবারের আত্মঘাতী গোলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় দক্ষিণ আমেরিকার দেশটি। আত্মঘাতী গোল করার কারণে হত্যা করা হয় তরুণ ফুটবলারকে। গেলো ২ জুলাই ছিল দ্য জেন্টেলম্যান খ্যাত এই ডিফেন্ডারের ২৪তম মৃত্যু বার্ষিকী। 

দুই যুগ আগে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দেয়ার প্রায় ৫ দিনের মাথায় দেশের মাটিতে গুলি করে হত্যা করা হয় দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে সেরা এই সেন্টারব্যাককে। কিন্তু হঠাৎ করে এত দিন পর কেনো তুলে আনা হলো এসকোবার প্রসঙ্গ? 

লাতিন এই ফুটবলারের মৃত্যুর ঠিক ২৪ বছর পর আবারও সেই রকমই এক পরিস্থিতির সম্মুখীন বর্তমান কলম্বিয়ার জাতীয় ফুটবল দলের সদস্যরা। সেই ২৪ বছর আগের স্মৃতিই এখন ফিরে আসছে কলম্বিয়ার ফুটবলারদের মনে। 

২ জুলাই ছিল এসকোবারের ২৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। এর ঠিক পরের দিন অর্থৎ ৩ জুলাই চলতি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের কাছে টাইব্রেকারে হেরে বিদায় নেয় হোসে পেকারম্যানের শিষ্যরা। টাইব্রেকারে গোল মিস করেন কলম্বিয়ার দুই ফুটবলার মাতেউস উরিবে এবং কার্লোস বাক্কার। খবর ডেইলি মিররের।

অ্যাথলেতিকো মাদ্রিদ তারকা রাদামেল ফ্যালকাও নেতৃত্বাধীন দলটির বিদায় বিশ্বকাপ থেকে নিশ্চিত হবারর পরই ওই দুই ফুটবলারের উদ্দ্যেশে একের পর এক আপত্যিকর মন্তব্য ভেসে আসে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যার মধ্যে রয়েছে মৃত্যুর হুমকিও! 

এসি মিলানের ফরোয়ার্ড বাক্কাকে উদ্দেশ্য করে যে বার্তা দেয়া হয়েছে তাতে বলা হয়েছে, বাক্কা যেন দেশে না ফেরেন এবং তাকে ‘মৃত’ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। 

পাশাপাশি টুইটারে মেক্সিকান দল ক্লাব আমেরিকার মিডফিল্ডার উরিবেকে উদ্দেশ্য করে দেয়া বার্তায় বলা হয়েছে দেশের জার্সিতে তিনি নিজের শেষ ম্যাচটি খেলে ফেললেন। শুধু তাই নয়, জাতীয় দলের অন্যদেরও হুমকি দেয়া হয়েছে, যেন ভুল করেও তারা দেশে না ফেরেন। 

চলতি বিশ্বকাপে জাপানের বিপক্ষে লিগ পর্বের প্রথম ম্যাচে কলম্বিয়ার কার্লোস স্যাঞ্চেজ ম্যাচ শুরু তিন মিনিটের মাথায় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। তাকেও দেয়া হয় মৃত্যুর হুমকি। যদিও সেই ঘটনার তদন্ত এরইমধ্যেই শুরু করেছে পুলিশ। কিন্তু এর পরেও হুমকি দেয়ায় উদ্বেগ বাড়ছে।

ওয়াই/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়