• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

আফগানিস্তান এ দলের কাছে পাত্তাই পেলো না টাইগাররা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০২ জুন ২০১৮, ০৮:৪৯ | আপডেট : ০২ জুন ২০১৮, ০৯:২৭
তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু আগে বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে ৮ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে আফগানিস্তান এ দল। এক তামিম ছাড়া স্কোয়াডের প্রধান সব খেলোয়াড়ই ছিলেন। মুস্তাফিজ না থাকার অভাবটা বোধহয় একটু বেশিই ভোগাচ্ছে বাংলাদেশ দলকে। সেটা প্রমাণ পেল প্রস্তুতি ম্যাচে। সিরিজ শুরুর আগেই আফগানদের ফেভারিটের তকমা দিয়েছিলেন সাকিব।

শুক্রবার দেরাদুনের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় শুরুর কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে তা শুরু হতে দেরি হয়। হঠাৎ মুশুলধারে বৃষ্টি ম্যাচটির অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়েই শঙ্কায় ফেলে দিয়েছিল। পরে অবশ্য বৃষ্টি থামলে অনিশ্চিয়তা দূরে ঠেলে খেলা মাঠে গড়ায়।

ব্যাটিংয়ে নেমে আরও একবার বাংলাদেশের ওপেনিংয়ে ব্যর্থ হন সৌম্য সরকার। তার পথ ধরে দ্রুতই ফিরে যান আরেক ওপেনার লিটন দাসও। তামিমের অনুপস্থিতিতে ওপেনিংয়ে আবারও হোঁচট খায় বাংলাদেশ। শুরুর ধকল সামলে ইনিংসের মাঝে দলের হাল ধরেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। 

মুশফিক ২৭ রানে আউট হওয়ার পর ব্যাট হাতে নামেন মাহমুদুল্লাহ। তবে মুশফিকের আউট হওয়াটা ছিল বেশ আলোচনায়। তিনবার রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বেঁচে গেলেও চতুর্থবার ঠিকেই শর্ট থার্ডম্যানে ধরা পড়েন তিনি। এরপরই দ্রুতই ফিরে যান সহ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ। 

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : মেসি-নেইমারের গোলে মিলবে শিশুদের খাবার
--------------------------------------------------------

তখনই দলের ত্রাতা হয়ে আবির্ভূত হন দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ দলে সুযোগ পাওয়া মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। দলীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান করে দলকে ১৪৬ রানের লড়াকু সংগ্রহ এনে দেন এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। শেষ দিকে সাব্বিরের ১৮ রানও ভূমিকা রাখে দলের এ সংগ্রহে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪৬ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস।

উল্লেখ্য, আফগানদের বোলিংয়ের মূল কর্ণধার রশিদ খান ও মুজিবুর রহমানকে ছাড়াই এদিন নামে আফগানরা। 

১৪৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বেশ রক্ষণাত্মক খেলতে থাকেন আফগানরা। প্রথম ওভারেই আবু জায়েদ রাহি আফগানদের ওপেনিং জুটি ভেঙে দেন। পঞ্চম ওভারে ২২ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেটটি নেন আবু হায়দার রনি। এখান পর্যন্তই বাংলাদেশের কর্তৃত্ব শেষ। শেষ পর্যন্ত প্রথম দশ ওভারে আফগানরা ৫৯ রান করে দুই উইকেট হারিয়ে। 

এরপর শুধুই বল কুড়িয়ে সময় পার করেছে বাংলাদেশ। হযরতউল্লাহ জেজাই ও মোহাম্মদ নবীদের মারকুটে ব্যাটিংয়ের মধ্যে পেছাতে পেছাতে সাকিব বল হাতে নেন ১৪তম ওভারে। এতো পরে এসেও রেহাই মেলেনি, তার বলকেও বেধড়ক পিটুনি দিতে থাকেন জেজাই-নবীরা। শেষ পর্যন্ত ১৭তম ওভারে ১৬ বল বাকি থাকতেই জয় নিশ্চিত করে আফগানরা।

এ হার বাংলাদেশের জন্য একটি বার্তাও বটে। আগামী ৩ তারিখ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দেরাদুনে মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ও শেষ টি-টুয়েন্টি ৫ ও ৭ জুন।

আরও পড়ুন :

এএ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়