• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

ইসরায়েলে খেলতে চান না সাম্পাওলিও

স্পোর্টস ডেস্ক
|  ৩১ মে ২০১৮, ১১:৩৪ | আপডেট : ৩১ মে ২০১৮, ১১:৪৪
স্বাধীন ফিলিস্তিনের দাবিতে উত্তাল জেরুজালেম। দিনের পর দিন ইসরায়েলি আগ্রাসনের শিকার হয়ে আসছেন তারা। ইসরায়েলের হামলায় ফিলিস্তিনি মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত হলেও সেই ইসরায়েলেই ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে মেসির আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপের ঠিক আগ দিয়ে জুনের ৯ তারিখে নেতানিয়াহুর দেশের বিপক্ষে এক প্রীতি ম্যাচ খেলবে সাম্পাওলির দল।। আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশন সেই ম্যাচ নিয়ে ইতিবাচক হলেও সেখানে খেলতে মন সায় দিচ্ছে না আর্জেন্টাইন কোচ সাম্পাওলির।

অবশ্য এর আগে ইসরায়েলের সঙ্গে ম্যাচ না খেলতে মেসির দল আর্জেন্টিনাকে অনুরোধ জানিয়েছেন স্বাধীনতাকামী ফিলিস্তিনবাসীরা। এমনকি মেসির উদ্দেশ্যে খোলা চিঠি লিখেছেন মোহাম্মদ খলিল নামের এক তরুণ। এবার কার্যত দৃষ্টিতে তার দলে যোগ দিলেন কোচ সাম্পাওলি।

হাইতির বিপক্ষে বিশ্বকাপপূর্ব এক প্রীতি ম্যাচে ৪-০ গোলের জয়ে ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন আর্জেন্টিনার কোচ। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইসরায়েলের মাটিতে ম্যাচ প্রসঙ্গে বলেন, আমি ম্যাচটি বার্সেলোনায় খেলতে চেয়েছিলাম। বিশ্বকাপের আগে কম ভ্রমণ করতে চেয়েছিলাম আমরা।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : রাতে লর্ডসে নামছে তামিম-আফ্রিদির বিশ্ব একাদশ
--------------------------------------------------------

ইসরায়েলের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে আর কথা না বললেও তার মুখে উঠে এসেছে হাইতির বিপক্ষে দলের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা। 

সাম্পাওলি চাইলেও এ ম্যাচ বাতিল করতে পারবেন না। ইতোমধ্যে ২০ মিনিটেই শেষ হয়ে গেছে আর্জেন্টিনা-ইসরায়েল ম্যাচের টিকিট। এমনকি ইসরায়েলে সফরের জন্য আর্জেন্টিনা বোর্ডকে ৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিচ্ছে ইসরায়েল সরকার। যদি এই ম্যাচে মেসি না খেলেন সেক্ষেত্রে অর্ধেক অর্থ প্রদান করবে দেশটি।

এর আগে ২০১৩ সালে ফিলিস্তিনে সফর করেছিলেন মেসি। সেবার বার্সেলোনার হয়ে পশ্চিম তীরে ফুটবলের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছিলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।   

আরও পড়ুন :

এএ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়