বাংলাদেশের সামনে বিশাল টার্গেট

প্রকাশ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৮:১১ | আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২০:৪৪

​ আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে ২১১ রানের বড় টার্গেট দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। 

আজ রোববার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে সফরকারীদের ব্যাট করতে পাঠান অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা।

এদিন চোট কাটিয়ে দলে ফেরেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। এই ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হয়েছে পেসার আবু জায়েদ রাহি ও স্পিনার মেহেদি হাসানের। এছাড়া দলে জায়গা করে নেন মোহাম্মদ মিথুন।

ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনা করেন লঙ্কান দুই ওপেনার। ৯৮ রানের জুটি গড়ে ৩৭ বলে ব্যক্তিগত ৪২ রানে ফিরে যান দানুশকা গুনাথিলাকা। সৌম্য সরকারের বলে তামিমের তালু বন্দি হন এই ব্যাটসম্যান।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: দুই নতুন মুখ নিয়ে ফিরলেন তামিম
--------------------------------------------------------

ফাস্ট ডাউনে খেলতে নেমে ওপেনার কুশল মেন্ডিসকে নিয়ে ৫১ রানের জুটি গড়েন থিসারা পেরারা।

দলীয় ১৪৯ রানে মাত্র ১৭ বলে ৩১ রান করে ড্রেসিংরুমে ফিরে যান এই তারকা অলরাউন্ডার। অভিষিক্ত রাহির বলে সৌম্যর হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন পেরারা।

১১ রান যোগ হতেই আরেকটি উইকেটের পতন হয়। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ম্যাচে সেরার পুরস্কার পাওয়া কুশলকে ফিরেয়ে দেন কাটার মাস্টার খ্যাত মুস্তাফিজুর রহমান। ৪২ বলে ৭০ রান করে অভিষিক্ত মেহেদির হাতে ক্যাচ দেন এই ওপেনার।

শেষ দিকে দাশুন শানাকাকে নিয়ে দ্রুত ৪৫ রানে জুটি গড়েন উপুল থারাঙ্গা। দলীয় ২০৫ ও ব্যক্তিগত ২৫ রান করে ফেরেন এই তারকা ব্যাটসম্যান। মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের বলে লং অনে সৌম্যর হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

শেষ ওভার পর্যন্ত ক্রিজে ১১ বলে ৩০ রান করা শানাকা এবং ১ বলে ২ রান করে অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল অপরাজিত ছিলেন।

শ্রীলঙ্কা একাদশ:
উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল (অধিনায়ক), জীবন মেন্ডিস, থিসারা পেরেরা, দাসুন শানাকা, আমিলা আপোনসো, আকিলা ধনঞ্জয়া, শেহান মাধুশানকা ও ইসুরু উদানাভ 

বাংলাদেশ একাদশ:
তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিথুন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, মেহেদী হাসান, আরিফুল হক, নাজমুল হাসান অপু, মুস্তাফিজুর রহমান ও আবু জায়েদ রাহী।

আরও পড়ুন: 

ওয়াই/জেএইচ