থারাঙ্গাকে ফিরিয়ে নাগিন ড্যান্স অপুর

প্রকাশ | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:৩৫ | আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:৪০

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

সৌম্য, মুশফিকের দুটি অর্ধশত ও মাহমুদুল্লাহর ক্যাপ্টেন্স নকের ওপর ভর করে লঙ্কানদের সামনে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে পাহাড়সম টার্গেট দাঁড় করিয়েছে টাইগাররা। পাহাড়সম টার্গেট পাড়ি দিতে কুশল মেন্ডিস ও গুণাথিলাকার ব্যাটে জবাব দিচ্ছিলো লঙ্কানরাও। অবশেষে গুণাথিলাকাকে আউট করে ঝড় থামান অভিষিক্ত অপু। 

অপরপ্রান্তে ঠিকই বোলারদের ওপর ঝড় বইয়ে চলছিলেন কুশল মেন্ডিস। অবশেষে দলীয় ৯০ রানে সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানিয়ে টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম শিকার হিসেবে কুশল মেন্ডিসকে ফেরান তিনি। অবশ্য তার আগেই ব্যাটে ঝড় তুলে ২৭ বলে ৮ চার ও ২ ছয়ের সাহায্যে ৫৩ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন মেন্ডিস।

মেন্ডিস ফিরে যাওয়ার পরই আফিফের ক্যাচ বানিয়ে থারাঙ্গাকে আউট করেন নাজমুল ইসলাম অপু। 

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৯ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ৯২ রান। দুশান শানাকা ১ ও ডিকভেলা ০ রানে ব্যাট করছেন। 

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: গুণাথিলাকাকে ফেরালেন অভিষিক্ত অপু
--------------------------------------------------------

হোম অব ক্রিকেট খ্যাত মিরপুরের শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিবা-রাত্রির দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় টাইগাররা।

ব্যাটিংয়ে নেমে জাকিরকে সঙ্গে নিয়ে সৌম্য সরকার ইনিংসের গোড়াপত্তন শুরু করেন। দলীয় ৪৯ রানে গুণাথিলাকার বলে জাকির বিদায় নিলেও অপরপ্রান্তে ব্যাটে ঝড় তোলেন সৌম্য। শেষ পর্যন্ত ৩২ বলে ৬ চার ও ২ ছয়ের সাহায্যে ৫১ রান করে জীবন মেন্ডিসের বলে এলবির ফাঁদে পড়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। 

একই ওভারের তৃতীয় বলে অভিষিক্ত আফিফ হোসেন কোন রান না করেই মেন্ডিসের বলে ডিকাভেলার ক্যাচে পরিণত হন। এরপর উইকেটে মুশফিকের সঙ্গে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ এসে জুটিবদ্ধ হয়ে দলীয় সংগ্রহকে বাড়াতে সাহায্য করেন। 

এ দুজন মিলে চতুর্থ উইকেট জুটিতে ৭৩ রানের পার্টনারশীপ গড়েন। দলীয় ১৭৩ রানে মাহমুদুল্লাহ ৩১ বলে ২ চার ও ২ ছয়ে ৪৩ রান করে উদানার শিকারে পরিণত হন। সাব্বির ক্রিজে এসে ঝড় তোলার আগেই তাকে বোল্ড করে ফেরান পেরেরা। 

শেষ পর্যন্ত ৪৪ বলে ৭ চার ও ১ ছয়ে ৬৬ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন মুশফিকুর রহিম। 

শ্রীলঙ্কার পক্ষে জীবন মেন্ডিস ২টি, গুণাথিলাকা, উদানা ও পেরেরা ১টি করে উইকেট লাভ করেন। 

বাংলাদেশ একাদশে আজ বেশ কয়েকটি পরিবর্তন এসেছে। অভিষেক হয়েছে চার তরুণের। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আজ প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছেন আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, জাকির হাসান ও নাজমুল ইসলাম অপু।

ইনজুরির কারণে আজ একাদশে নেই ওপেনার তামিম ইকবাল। ওপেনার হিসাবে দলে জায়গা পেয়েছেন জাকির হাসান। মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে শঙ্কা থাকলেও তিনি একাদশে আছেন। সাকিব আল হাসান না থাকায় তার জায়গায় দলে ঢুকেছেন আফিফ হোসেন।
তিন পেসারের একাদশে রাখা হয়েছে একজন স্পিনারকে। স্পিনার হিসাবে দলে জায়গা পেয়েছেন নাজমুল ইসলাম অপু। তিন পেসার হলেন মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

অন্যদিকে, শ্রীলঙ্কার হয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামছেন পেসার শিহান মাদুশানকা। আর ২০১৩ সালের পর প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে নামছেন জীবন মেন্ডিস।

আরও পড়ুন:

এএ