• ঢাকা সোমবার, ২১ মে ২০১৮, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালের পথে কিউইরা

স্পোর্টস ডেস্ক
|  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৭:২৩ | আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৮:০০
ট্রান্স-তাসমান ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের আজকের ম্যাচ দিয়ে অস্ট্রেলিয়া থেকে নিউজিল্যান্ডে ফিরেছিল টুর্নামেন্ট। আর ঘরের মাঠের প্রথম ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে কিউইরা। অন্যদিকে টানা তিন ম্যাচ হেরে পরাজয়ের হ্যাটট্রিক করেছে ইংল্যান্ড। প্রথম তিন ম্যাচ জিতে আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া।

মঙ্গলবার ওয়েলিংটনের ওয়েস্টপ্যাক স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মার্টিন গাপটিল ও কেন উইলিয়ামসনের ফিফটিতে ৫ উইকেটে ১৯৬ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৮৪ রানের বেশি করতে পারেনি ইংল্যান্ড।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৩৯ রানে কলিন মানরোর (১১) উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় উইকেটে ৮২ রানের জুটি গড়েন গাপটিল ও উইলিয়ামসন। দুজনই তুলে নেন ফিফটি। গাপটিল ৪০ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৬৫ রান করে ফিরলে ভাঙে এ জুটি।

আদিল রশিদের পরপর দুই বলে ফেরেন গাপটিল ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। দলের স্কোর দেড়শ পার করেন উইলিয়ামসন। দলীয় ১৬৯ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরার আগে ৪৬ বলে ৪টি করে চার ও ছক্কায় ৭২ রান করেন কিউই অধিনায়ক।

এ ছাড়া মার্ক চ্যাম্পম্যানের ২০ ও অভিষিক্ত টিম সেইফার্টের ৫ বলে অপরাজিত ১৪ রানের সুবাদে বড় পুঁজি পায় স্বাগতিকরা। 

ইংল্যান্ডের হয়ে মার্ক উড ও আদিল রশিদ ২টি এবং ক্রিস জর্ডান ১টি উইকেট লাভ করেন। 

বড় লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই ধাক্কা খায় ইংল্যান্ড। দলীয় ১৪ রানে টিম সাউদির বলে ট্রেন্ট বোল্টকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জেসন রয় (৮)। এরপর অ্যালেক্স হেলস ও ডেভিড মালানের পাল্টা আক্রমণে ঘুরে দাঁড়ায় ইংলিশরা। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে এই দুজন দ্বিতীয় উইকেটে ৬৫ রানের জুটি গড়েন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: সাকিবকে ছাড়া খেলা বাংলাদেশের জন্য বড় আঘাত
--------------------------------------------------------

হেলসকে ফিরিয়ে ঝড় থামান স্পিনার ইশ সোধি। ২০১৩ সালে এই মাঠেই অপরাজিত ৮০ রান করেছিলেন হেলস। এদিন ২৪ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৪৭ রান। হেলসের বিদায়ের পর জেমস ভিন্সকে (১০) সরাসরি থ্রোয়ে রান আউট করেন উইলিয়ামসন। বেশিক্ষণ টেকেননি অধিনায়ক জস বাটলার (২) আর স্যাম বিলিংসও (১২)।

একপ্রান্ত আগলে রাখা মালান ডেভিড উইলিকে নিয়ে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু মালান ৪০ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৫৯ রান করে ফেরার পর আর পেরে ওঠেনি ইংল্যান্ড। ১৯তম ওভারে রান আউট হওয়া উইলি করেন ২১ রান।

নিউজিল্যান্ডের বোল্ট, সোধি ও মিচেল স্যান্টনার ২টি করে উইকেট নেন। একটি উইকেট পেয়েছেন সাউদি। 

প্রাথমিক পর্বে নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ বাকি আরো দুটি, ইংল্যান্ডের একটি। আগামী শুক্রবার অস্ট্রেলিয়াকে হারালেই ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাবে নিউজিল্যান্ডের। তখন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ ম্যাচটা হবে যাবে ‘ডেড রাবার’।

ম্যাচে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা কেন উইলিয়ামসন প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হন।

আরও পড়ুন:

এএ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়