close
ঢাকা, রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৩ পৌষ ১৪২৪

চেন্নাইয়ের হয়ে নামতে পারবেন ধোনিরা

স্পোর্টস ডেস্ক
|  ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৭:৪০ | আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৭:৫৮
ফিক্সিংয়ের কারণে নির্বাসিত ছিল চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়্যালস। গত জুলাইতে দু’দলের নির্বাসনের মেয়াদ শেষ হওয়াতে ২ বছরের নির্বাসন কাটিয়ে পরবর্তী আইপিএলে ফিরছে দল দুটি। 

নির্বাসন কাটিয়ে পুনরায় ফেরায় উভয় দলকে স্বাগত জানিয়েছে বিসিসিআই। আইপিএল পরিচালনা কমিটির বৈঠকের পর জানানো হয়, আগামী আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়েই খেলবেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। গভর্নিং কাউন্সিলের এ সিদ্ধান্তে ধোনিরও তার পুরনো দল চেন্নাইয়ে খেলতে আর কোনো বাধা রইলো না।

২০০৮ সালে ধোনির নেতৃত্বেই আইপিএল যাত্রা শুরু হয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংসের। ২০১০ ও ২০১১ সালে পর পর ২ বছর আইপিএল জয়ী চেন্নাই সুপার কিংসকে অন্যতম শক্তিশালী দল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ধোনি, রায়না, অশ্বিনরা। তাই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে আসার পরও ধোনির উপরই ভরসা রাখতে চাইছিল চেন্নাই সুপার কিংস কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে এর আগে বিবৃতিও দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে পুনেতে আইপিএল অভিজ্ঞতা সুখের হয়নি দুটি বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক ভারত অধিনায়কের। পুনে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শুরু থেকেই ধোনির মতপার্থক্য নিয়ে কানাঘুষা ছিল। এ সুযোগে ধোনিকে সরিয়ে পুনের অধিনায়কের দায়িত্ব অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে দেয়ায় বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসে। এমনকি ধোনির স্ত্রী সাক্ষীও এ নিয়ে টুইট করেন। তখন থেকেই চেন্নাই সুপার কিংসে ধোনির প্রত্যাবর্তন নিয়ে আলোচনা শুরু হয় ভারতীয় ক্রিকেটাঙ্গণে।

আজ বৃহস্পতিবার বিসিসিআইয়ের কার্যনির্বাহী সচিব অমিতাভ চৌধুরী জানান, পুরোনো দল ধরে রাখা নিয়ে কোনো বাধা নেই চেন্নাই ও রাজস্থানের সামনে। ২০১৫ আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলেছিলেন এমন ক্রিকেটারদের অনেকেই আইপিএল ২০১৭ সালে পুনে ও গুজরাট লায়নসের হয়ে খেলেছিলেন। তাদের থেকে নিজেদের দল বাছাই করতে পারবে চেন্নাই ও রাজস্থান।

মাহির চেন্নাই সুপার কিংসে ফিরে আসার খবরে এখন থেকেই ফ্যানদের উত্তেজনা তুঙ্গে। জানা গেছে, ডোয়েন ব্রাভো চেন্নাইয়ের হয়ে ২২ গজ মাতাবেন। মুম্বাইয়ের দলে আছেন রোহিত শর্মা, পোলার্ড, বুমরাহ ও পান্ডিয়াও।

প্রসঙ্গত, পুরনো ক্রিকেটার ধরে রাখার সংখ্যা ৩ থেকে বাড়িয়ে ৫ করার প্রস্তাব দিয়েছিল আইপিএলর বেশিরভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজি। আজকের বৈঠকে এই দাবি মেনে নিয়েছে আইপিএল পরিচালনা কমিটি। পাশাপাশি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর 'স্যালারি পার্স' ৬০ কোটি থেকে ৮০ কোটি করার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে। যেখানে জাতীয় দলে খেলা ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে অঙ্কটা ৫০ থেকে ৭৫ লক্ষ। আর জাতীয় দলের বাইরের ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে নিলামের সর্বনিম্ন মূল্য ধরা হয়েছে ২০ থেকে ৪০ লক্ষ।

এএ/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়