close
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ | ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ঢাকার জয়

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৫৬ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১৭:২০
একদিনের বিরতি দিয়ে মাঠে গড়িয়েছে বিপিএল পঞ্চম আসর। ১৩তম ম্যাচে কী  ছিল না? পেন্ডুলামের মতো ম্যাচের ভাগ্য দুলছিল। একবার ঢাকার দিকে তো আরেকবার খুলনার দিকে। অবশেষে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ১ বল ও ৪ উইকেট হাতে নিয়ে ম্যাচ জিতে নিয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটস। এদিন ঢাকার দর্শকরা ব্র্যাথওয়েট ও পোলার্ডের ঝড়ো ইনিংস দেখে মুগ্ধ হন।

মঙ্গলবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ঢাকা অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। অধিনায়কের সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমাণ করতে বেশি সময় নেয়নি বোলাররা। চতুর্থ ওভারের পঞ্চম বলে আবু হায়দার রনির ক্যাচ বানিয়ে মাইকেল ক্লিঙ্গারকে (১০) ফেরত পাঠান সাকিব। ৮ রান পর রনির শিকার হয়ে ফেরেন ধীমান ঘোষ (২)। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান শান্তকে দলীয় ৪৬ রানে ফেরান উইন্ডিজ স্পিনার সুনিল নারাইন। ৩ উইকেট হারানোর পর উইকেট আটকে রানের চাকা সচল রাখায় মনযোগ দেন খুলনা অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ ও রুশো। দলীয় ৭১ রানে আফ্রিদির শিকারে পরিণত হন মাহমুদুল্লাহ (১৪)।

দলীয় ১২৫ রানে রুশো (৩৪) রনির দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন। এরপর আরিফুল হককে সঙ্গে করে বড় স্কোরের স্বপ্ন দেখাতে থাকেন ব্র্যাথওয়েটে। শেষ পর্যন্ত তার ঝড়ে ১৫৬ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় খুলনা। ২৯ বলে ৪টি চার ও ৬টি ছক্কায় ৬৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন ব্র্যাথওয়েট। আরিফুল হক ৪ রানে অপরাজিত থাকেন। 

ঢাকার পক্ষে আবু হায়দার রনি ২২ রানে ২টি এবং শহীদ আফ্রিদি, সাকিব ও নারাইন ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

১৫৭ রানের লক্ষে খেলতে নেমে শুরু থেকেই চাপে পড়ে ঢাকা ডায়নামাইটস। প্রথম ওভারেই দলীয় ৪ রানে লুইসকে (৪) ফেরান আবু জায়েদ। দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে শফিউল ইসলাম আগের ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় আফ্রিদিকে (১) রানে ফেরত পাঠান। এর ধকল না সামলাতে ফের বিপদে পড়ে ঢাকা। এবার ফেরেন ডেলপোর্ট (২)। উইকেটে বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি ওপেনিংয়ে নামা সুনীল নারাইনও (৭)।

 পরে অধিনায়ক সাকিব ম্যাচসেরা জহুরুলকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন। তবে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি সেই জুটি। সাকিবকে (২০) আউট করে জুটিতে ভাঙন ধরান মাহমুদুল্লাহ। পোলার্ড নামার পরই খেলায় ফিরতে থাকে ঢাকা। ক্যারিবীয় হার্ডহিটার জহুরুলকে নিয়ে জয়ের পথ দেখাতে থাকেন।

দলীয় ১১৪ রানে পোলার্ডকে (৫৫) ফেরান শফিউল ইসলাম। সেই সঙ্গে ম্যাচে ফিরে খুলনা। আউট হওয়ার আগে ২৪ বলে ৬ ছক্কা ও ৩ চারে দুর্দান্ত ইনিংসটি উপহার দেন পোলার্ড। বাকি কাজটা মোসাদ্দেককে (১৪*) নিয়ে সারেন জহুরুল ইসলাম (৪৫*)। ৩৯ বলে ৫ চারে ৪৫ রানে অপরাজিত থাকেন জহুরুল। আর ১২ বলে ১৪ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন মোসাদ্দেক।

খুলনার পক্ষে শফিউল ২টি ও আবু জায়েদ, আর্চার, ধনঞ্জয়া, মাহমুদুল্লাহ ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

স্কোর কার্ড
খুলনা টাইটান্স

২০ ওভার ১৫৬/৫ (নাজমুল হোসেন শান্ত ২৪, মাইকেল ক্লিঙ্গার ১০, ধীমান ঘোষ ২, রাইলি রুশো ৩৪, মাহমুদুল্লাহ ১৪, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট ৬৪*, আরিফুল হক ৪*; সৈয়দ খালেদ আহমেদ ০/৯, মোসাদ্দেক হোসাইন ০/১৫, শহিদ আফ্রিদি ১/২৩, সাকিব আল হাসান ১/৩২, আবু হায়দার রনি ২/৪০, সুনিল নারাইন ১/২২, কাইরন পোলার্ড ০/১৩)

ঢাকা ডায়নামাইটস
১৯.৫ ওভার ১৫৭/৬ (এভিন লুইস ৪, সুনিল নারাইন ৭, শহিদ আফ্রিদি ১, ক্যামেরন ডেলপোর্ট ২, সাকিব আল হাসান ২০, জহুরুল ইসলাম ৪৫*, কাইরন পোলার্ড ৫৫, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ১৪*; আবু জায়েদ ১/২৪, শফিউল ইসলাম ২/২৪, জোফ্রা আর্চার ১/২৬, আকিলা ধনঞ্জয়া ১/১৭, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট ০/৩৪, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১/২৯)

ফলাফল: ঢাকা ডায়নামাইটস ৪ উইকেটে জয়ী।
প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: জহুরুল ইসলাম (ঢাকা ডায়নামাইটস)

এএ/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়