close
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

বিদায় বলতে গিয়ে কেঁদে ফেললেন বুফন

স্পোর্টস ডেস্ক
|  ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১১:১৭ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১১:২৮
শেষ পর্যন্ত শঙ্কাটাই ফলে গেল। রাশিয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব থেকেই ছিটকে গেলে ইতালি। বাছাইপর্বের প্লে-অফের ফিরতি লেগে সুইডেনের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে আজ্জুরিরা। প্রথম লেগে সুইডিশদের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল তারা। এতে প্রায় ৬ দশক পর বিশ্বকাপের মূল পর্বে উত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ  হলো চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। দলকে বিশ্বকাপে তুলতে না পারার হতাশায় অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন কিংবদন্তি গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন।

ম্যাচ শেষেই এ সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন তিনি। তা জানাতে গিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন সর্বকালের অন্যতম সেরা গোলরক্ষক। বুফন বলেন, ‘যা ঘটেছে তা লজ্জাকর। আমরা বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারলাম না। গোটা জাতি ও পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা অগণিত ইতালি ফুটবল ভক্ত-সমর্থকদের নিকট আমি ক্ষমাপ্রার্থী।’

১৯৯৭ সালে ইতালির হয়ে অভিষেক হয় বুফনের। দীর্ঘ ২০ বছরের ক্যারিয়ারে দেশের হয়ে ১৭৫টি ম্যাচে খেলেছেন তিনি। রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট না পেলেও ভবিষ্যত নিয়ে আশাবাদী এ চৌকস খেলোয়াড়, ‘এমন মুহূর্ত আমাদের জন্য অনাকাঙ্ক্ষিত। তবে মুষড়ে পড়ার কিছু নেই। প্রত্যেকটি সমস্যার মধ্যে সমাধান লুকিয়ে থাকে। আমি বিশ্বাস করি, এ ব্যর্থতা সমস্যা খুঁজে বের করে সামনে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে।’

অবশ্য কিছুদিন আগেই বুফন জানিয়েছিলেন, ২০১৮ বিশ্বকাপ খেলে বিদায় নিতে চান। তবে সেই স্বপ্নের অপমৃত্যু ঘটায় নিয়তির নির্মম পরিহাসের শিকার হয়ে আগেভাগেই তাকে গুডবাই জানাতে হলো। অনেকে এ ব্যর্থতার জন্য দায়ী করছেন দলের কোচ জিয়ান পিয়েরো ভেন্তুরাকে। কিন্তু কারো কাঁধে ব্যর্থতার দায় তুলে দিতে নারাজ গোলবারের অতন্দ্র প্রহরী, ‘ভরাডুবির দায়ভার আমাদের সবাইকে নিতে হবে। এজন্য কেউ এককভাবে দায়ী নন। মনে রাখতে হবে, আমাদের নিজস্ব ফুটবল সংস্কৃতি রয়েছে। আমরা একসঙ্গে জিতি, একসঙ্গে হারি।’

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অসংখ্য শিরোপা জিতেছেন বুফন। এর মধ্যে সেরা ২০০৬ সালের স্বপ্নের বিশ্বকাপ। সেবার ইতালিকে শিরোপা জেতাতে গোল পোস্টে আস্থার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়ে অগ্র সেনানীর ভূমিকা পালন করেন তিনি।

ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়