close
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭ | ০২ কার্তিক ১৪২৪

৪ উইকেটে হারলো বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক
|  ১৭ মে ২০১৭, ২৩:৩৬ | আপডেট : ১৭ মে ২০১৭, ২৩:৪৭
ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪ উইকেটের জয় পেলো নিউজিল্যান্ড। এ নিয়ে দু’ম্যাচই জিতে পয়েন্ট টেবিলে সবার ওপরে থাকলো কিউইরা। অন্যদিকে দু’ম্যাচ খেলে জয়বঞ্চিত থাকলো টাইগাররা।মাশরাফি বাহিনীর প্রথম ম্যাচটি (প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড) বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়।

বুধবার ডাবলিনের ক্লোনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ডে ২৫৮ রান তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে নিউজিল্যান্ড। লুক রঞ্চি - টম লাথামের উদ্বোধনী জুটিতে ৩৯ রান তুলে ফেলে কিউইরা। নিউজিল্যান্ড শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। তার বলে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন লুক রঞ্চি (২৭)।

রঞ্চির পর জর্জ ওয়ার্কারকে নিয়ে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন লাথাম। দুর্দান্ত গতিতে ছুটে চলে তাদের জুটি। তবে দলীয় ৮০ রানে খেই হারিয়ে ফেলে তারা। এসময় অযাচিত রান নিতে গিয়ে দেশসেরা ফিল্ডার সাব্বির রহমানের থ্রোতে রান আউট হয়ে ফেরেন ওয়ার্কার (১৭)।

দু’সঙ্গী ফিরে গেলেও একপ্রান্ত আগলে রাখেন লাথাম। কিছুক্ষণ পরই তার লাগাম টেনে ধরেন বাংলাদেশের রিভার্স সুইং তারকা রুবেল হোসেন। দলীয় ১১০ রানে এ কিউই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে (৫৪)  মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরতে বাধ্য করেন তিনি।

এ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন টেইলর। এ যাত্রায় তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন ব্রুম। তবে এতে বাধা হয়ে দাঁড়ান মুস্তাফিজ। তার বলে এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে ফেরেন  রস টেইলর (১৬)। এতে কিছুটা আশার আলো দেখতে শুরু করে বাংলাদেশ।

তবে টাইগারদের সেই আশায় জল ঢেলে দেন ব্রুম-নিশাম জুটি। ম্যাচের টার্নিং পয়েন্টে নিশামকে নিয়ে স্বাচ্ছন্দে লড়ে যান ব্রুম। এ যাত্রায় বেশ সফলও হন তিনি। তাকে ঠাউরে সঙ্গ দিয়ে যান নিশাম। ধীরে ধীরে দলও পৌঁছতে থাকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে। দল যখন জয় থেকে মাত্র ৩১ রান দূরে তখন রুবেলের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে ফেরেন  ব্রুম (৪৮)।

এরপর দলকে একবারে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়ে মাশরাফির বলে মোসাদ্দেক হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জেমস নিশাম (৫২)। বাকী যে একটু কাজ থাকে তা সারেন কলিন মানরো। শেষ পর্যন্ত ১৩ বল বাকি থাকতে ৪ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে নিউজিল্যান্ড।

বাংলাদেশের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটে ২৫৭ রান করে বাংলাদেশ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন মারকুটে ওপেনার সৌম্য সরকার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিক। ৫১ রান করেন নির্ভরশীল ব্যাটসম্যান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ ৪১ রান আসে মোসাদ্দেক হোসেনের ব্যাট থেকে।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে হামিশ বেনেট নেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট। এছাড়া ২টি করে উইকেট নেন জেমস নিশাম ও ইশ সোধি।

ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়