• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

পোকামাকড় থেকে বানানো দুধ বাজারে নিয়ে এলো দক্ষিণ আফ্রিকার কোম্পানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ৩১ মে ২০১৮, ১৩:৫৬ | আপডেট : ৩১ মে ২০১৮, ১৪:০৫
খামারে চাষ করা হচ্ছে পোকামাকড়। এ দৃশ্যটা সহ্য করা যায়। কিন্তু তাই বলে পোকামাকড় থেকে বিশেষভাবে দুধ বানানো হবে। এটা মানা কঠিন হয়ে যায়। এরকম একটি ঘটনাই ঘটেছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন ভিত্তিক গুরমে গ্রাব নামক একটি কোম্পানি ‘এটনমিল্ক’ নামের একটি বিশেষ দুধ বাজারে নিয়ে এসেছে। দুধটি চাষ করা পোকামাকড় থেকে বানানো হয়েছে বলে জানা গেছে। খবর সিনহুয়া ডট নেট এর।

দুধটি সম্পর্কে গুরমে গ্রাব এর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, এটনমিল্ক টেকসই, প্রকৃতিবান্ধব, পুস্টিকর, ল্যাকটোজ ফ্রি, সুস্বাদু, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের দুধ।

কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, এটন মিল্কের সবচেয়ে সুবিধার ব্যাপার হচ্ছে, এটাতে উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন আছে এবং আইরন, জিঙ্ক ও ক্যালসিয়ামসহ বিভিন্ন খনিজে সমৃদ্ধ।

দুই বছর আগে প্রতিষ্ঠানটি তেলাপোকা থেকে বানানো ‘ককরোচ মিল্ক’ বাজারে এনেছিল। দুধটি ডিপ্লোপটেরা পাঙ্কাটা নামক বিশেষ তেলাপোকা থেকে বানানো হয়েছিল।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : দুটি অমেরুদণ্ডী প্রাণি আবিষ্কার বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর
--------------------------------------------------------

এই বিশেষ তেলাপোকাটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপগুলোতে পাওয়া যায়। তেলাপোকার বিরল এ প্রজাতিটি একমাত্র তেলাপোকা, যেটি ডিম দেয়ার বদলে বাচ্চা প্রসব করে থাকে।

বিশেষ ধরনের এই তেলাপোকার দুধে থাকে স্বাস্থ্যকর প্রোটিন, চর্বি ও চিনি যা খেয়ে বাচ্চা তেলাপোকার পুষ্টি মেটে। 

তবে ২০১৬ সালে একদল ভারতীয় গবেষক পরীক্ষা করে খুঁজে পান যে, তেলাপোকার দুধে গরুর দুধের থেকে তিনগুণ বেশি শক্তি থাকে।

তবে বিজ্ঞানীরা খুব শিগগিরই তেলাপোকার দুধ বাজারে আসবে না বলে আশা করছেন। এর কারণ হিসেবে বলছেন এর নামটি অন্যরকম এবং এই দুধটি আসলেই খেতে স্বাস্থ্যকর কী না সে সম্পর্কে নিশ্চিত না।

গবেষকদলের প্রধান সুব্রামানিয়াম রামস্বামী তখন জানিয়েছিলন, তেলাপোকা দুধটি মানুষের খাওয়ার উপযুক্ত কীনা সেটা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন :

কেএইচ/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়