• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

৪০তম বিসিএসের আগেই কোটার প্রজ্ঞাপন জারির দাবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা
|  ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:৫৯ | আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:২২
কালক্ষেপন না করে ৪০তম বিসিএস বিজ্ঞপ্তির আগেই পাঁচ দফার আলোকে কোটা সংস্কারের প্রজ্ঞাপন জারির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পাঠ করেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক বিন ইয়ামিন মোল্লা।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, মহান জাতীয় সংসদে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট ঘোষণার দীর্ঘ পাঁচ মাস অতিবাহিত হয়ে গেলেও আজ অবধি কোটা সংস্কারের কাক্সিক্ষত প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়ায় ছাত্র সমাজ হতাশ ও বিক্ষুব্ধ। প্রজ্ঞাপন জারি করার জন্য ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিলো। তখন সরকারের মাননীয় সড়ক ও সেতুমন্ত্রী কিছুটা ধৈর্য ধরতে বলেছিলেন। নির্দিষ্ট সময়সীমার ১০ দিন পার হয়ে গেলেও আমরা প্রশাসনের কোনও কর্মতৎপরতা লক্ষ্য করছিনা।

------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : চকরিয়ায় বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৬
------------------------------------------------------------------

তিনি বলেন, পরিতাপের বিষয় আন্দোলন দমন করার জন্য আন্দোলনকারীদের নামে মিথ্যা ও প্রহসনের মামলা দেয়া হয়েছে। রিমান্ডের নামে নির্যাতন করা হয়েছে। দীর্ঘ দেড় মাস অন্ধকার প্রকোষ্ঠে আটকে রাখা হয়েছিলো। ছাত্র আন্দোলনের মুখে অবশেষে কেন্দ্রীয় নেতাদের জামিন দেয়া হয়। এছাড়াও শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকারীরা দেশব্যাপী সন্ত্রাসীদের উপর্যুপরি মারাত্মক হামলার শিকার হন।

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ৪০তম বিসিএস বিজ্ঞপ্তির আগেই ছাত্রসমাজের যে প্রত্যাশিত প্রজ্ঞাপন, তা জারি করে স্বস্তির নিঃশ্বাস নেয়ার সুযোগ দেয়া হোক। ছাত্রসমাজের যে পাঁচ দফা রয়েছে তার আলোকে আর কালক্ষেপণ না করে অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে কোটা সংস্কার করে প্রজ্ঞাপন জারির দাবি জানাই।

সংবাদ সম্মেলন থেকে তিন দফা দাবি উপস্থাপন করা হয়। দাবিগুলো হলো ১. ভিত্তিহীন, মিথ্যা ও হয়রানিমূলক সকল মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, ২. হামলাকারীদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে এবং ৩. পাঁচ দফার আলোকে কোটা পদ্ধতির যৌক্তিক সংস্কার করতে হবে।

আরও পড়ুন  :

এসজে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়