বিএনপি জোট সরকারের সময় অনেক নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে

প্রকাশ | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৩:৫৭ | আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০২

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় অনেক নেতাকর্মীকে অত্যাচার নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তাদের সময় অপারেশন ক্লীন হার্ট এর নামে আওয়ামী লীগের অসংখ্য নেতাকর্মী নির্যাতনের শিকার হয়েছে। ওই সময় দেড়শ’জন মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী ছিলেন। এখানে অনেক সংসদ সদস্য রয়েছেন যাদের অনেকে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ (রোববার) জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনে শোক প্রস্তাবের আলোচনায় এ কথা বলেন তিনি।

সংসদে বিরোধী দলের চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সরকারি দলের সদস্য এস, এম, মোস্তফা রশিদী সুজার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা অনেক দক্ষ দু’জন সংসদ সদস্যকে হারিয়েছি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা বলেন, এস, এম, মোস্তফা রশিদী সুজাকে হারিয়ে দলের অনেক ক্ষতি হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাজুল ইসলাম চৌধুরীর বলিষ্ঠ ভূমিকা ছিল। তিনি মনে প্রাণে চেয়েছিলেন নির্বাচনটা যাতে হয়। এই নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হওয়ার ব্যাপারে তার আন্তরিকতা ছিল। ওই নির্বাচনটা একটা চ্যালেঞ্জ ছিল।

বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ বলেন, তাজুল ইসলাম ও মোস্তফা রশিদী সুজা এতো তাড়াতাড়ি আমাদের ছেড়ে চলে যাবেন এটা আমরা ভাবতেও পারিনি। তার পরও প্রকৃতির নিয়ম আমাদের মেনে নিতেই হবে।

শোক প্রস্তাব আলোচনায় আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির কয়েকজন সিনিয়র নেতা অংশ নেন।

আরও পড়ুন :

জেএইচ