• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

খালেদা জিয়ার সুবিধার্থে কারাগারে আদালত বসানো হয়েছে: হানিফ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:৫১ | আপডেট : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:০৯
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন-‘বেগম খা‌লেদা জিয়া শারীরিক অসুস্থতার অজুহাতে ৬মাস ধরে আদাল‌তে হাজিরা দিতে যান না। খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা বিবেচনা করে তার সুবিধার্থে কারাগারে আদালত বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।’

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও ইসলামিক ফাউন্ডেশনে ইমামদের রিফ্রেশার্স প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

হা‌নিফ আরও ব‌লেন-বেগম খা‌লেদা জিয়া আদালতে গিয়ে বললেন, তিনি আর সেখা‌নে যেতে চান না। তাই বিএনপি এখন দেখাতে চাইছে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে, সংবিধান পরিপন্থীভাবে কারাগারে আদালত স্থাপন করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই নেতা ব‌লেন- দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে। কি কারণে তিনি কারাগারে গেছেন? এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে। এমনিতে কারও অর্থ-সম্পদ আত্মসাৎ করা পাপ আর সেটা যদি এতিমের হয় তাহলে সেটা মহাপাপ। খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন এতিমের টাকা আত্মসাৎ করেছেন। সামান্য কয়টা টাকার লোভ সামলাতে পারেননি!

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : মিথ্যাচার না করে প্রমাণ করুন গ্রেপ্তারকৃতরা অপরাধী নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
-------------------------------------------------------

হানিফ বলেন- ‘বিএনপি নেতারা অনেক সময় বলেন রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জন্য তার বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। অথচ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দেয়া, আওয়ামী লীগের আমলে নয়। এই মামলার বিচারকাজ যেন শেষ না হয়, সেজন্য বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা ১৪৮ বার সময়ক্ষেপণ করেছেন। উনি আদালতে না যাওয়ায় এতোদিন পর এসে দণ্ড ভোগ করছেন।

তিনি বলেন-‘বেগম জিয়ার মুক্তি একমাত্র আদালতের মাধ্যমে আসতে পারে। আর একটি পথ আছে যদি রাষ্ট্রপতি ওনাকে ক্ষমা করেন। এটা ছাড়া আর কোনও পথ নেই’।

আলেম সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে হা‌নিফ বলেন- “আপনাদের মাধ্যমে আজ আমি বিএনপি নেতাদের কাছে প্রশ্ন রাখ‌তে চাই, ‌বিএন‌পির প্রতিষ্ঠাতা মেজর জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে এই কারাগারের মধ্যেই আদালত বসিয়ে কর্নেল তাহেরকে ফাঁসি দিয়েছিল। তাহলে সেটাও কি অসাংবিধানিক ছিল? তখন সংবিধান লংঘন হয়নি? সেটা কি সংবিধান পরিপন্থী ছিল? অন্যায় কাজ ছিল? এই প্রশ্নটা আমি আপনাদের মাধ্যমে বিএনপি নেতাদের কাছে রেখে গেলাম।”


আরও পড়ুন :

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়