২২ ছাত্রের মুক্তি দাবি করলেন নব্বইয়ের দশকের ডাকসু নেতারা

প্রকাশ | ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৩৬ | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৪২

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

গ্রেফতার হওয়া নিরাপদ সড়ক ও কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন নব্বইয়ের ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের নেতৃবৃন্দ। শিক্ষার্থীদের এ আন্দোলনকে তারা যৌক্তিক ও অভূতপূর্ব জাগরণ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

বুধবার ডাকসুর সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনের সই করা এক বিবৃতিতে তারা এ আহ্বান জানিয়েছেন।

এতে সই করেছেন আমানউল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, ফজলুল হক মিলন, নাজিমউদ্দিন আলম, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি ও লুৎফুর রহমান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমর্থন জানিয়েছিলেন। কিন্তু ক্ষমতাসীনরা এ আন্দোলনকে ইতিবাচকভাবে নেননি। বরং চরম আতঙ্ক ও অস্থিরতা থেকে তারা বলপ্রয়োগের নীতিগ্রহণ করেছে।

এতে বলা হয়েছে, সরকার আন্দোলন দমন করতে পুলিশ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের লেলিয়ে দিয়ে ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এতে নির্বিচারে অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন :  পৃথিবীর সব থেকে নৃশংসতম রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড এটি: কাদের
-------------------------------------------------------

তারা বলেন, যৌক্তিক দাবিকে নিষ্ঠুরভাবে দমন করার নীতি কেবল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নয় গোটা দেশবাসীর সঙ্গে যুদ্ধ ঘোষণা। জোর জবরদস্তি করে কেউ-ই ক্ষমতার মসনদ রক্ষা করতে পারে না, বর্তমান সরকার সেটি ভুলে গেছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

গত ২৯ জুলাই শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একদল শিক্ষার্থীর ওপর উঠে যায় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বেপরোয়া বাস। এতে দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। আহত হন আরও বেশ কয়েকজন।

এর প্রতিবাদে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শিক্ষার্থীরা। নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামেন তারা, সেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে সারা দেশে।

এ সময় পুরো রাজধানী অচল করে দিয়ে টানা এক সপ্তাহ বিক্ষোভ দেখান বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা।

আরও পড়ুন :  

এসজে