ছাত্র-ছাত্রীরা আমাদের একটি পথ দেখিয়েছে: ডিএসসিসি মেয়র

প্রকাশ | ০৬ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০২ | আপডেট: ০৬ আগস্ট ২০১৮, ১৭:১১

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন- সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীরা আমাদের একটি পথ দেখিয়েছে। এটা বাস্তবায়নে আমাদের সবাইকে কাজ করতে হবে। পথ চলাকালে হেডফোন ব্যবহার না করা এবং ফুটপাথ ব্যবহারের বিষয়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে।সবাই সচেতন হলে আমাদের প্রাণ বাঁচবে।

আজ সোমবার নগর ভবনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে সর্বস্তরের নাগরিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং কাউন্সিলরদের অংশগ্রহণে ‘নিরাপদ সড়ক, আমাদের করণীয়’শীর্ষক এক মুক্ত আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের (দক্ষিণ) সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড কাউন্সিলররা।

যানবাহন চলাচলে বিশৃঙ্খলা আছে স্বীকার করে মেয়র বলেন, আমরা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে কয়েকবার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে অবৈধ বাহন, লাইসেন্সবিহীন চালক, মেয়াদ উত্তীর্ণ যানবাহনকে আটক করি ও মামলা দেই। কিন্তু আমাদের নিজস্ব কোনও কর্মকর্তা নেই এই বিষয়টা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য। এই কাজ করতে আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাহায্য নিয়ে থাকি, যা সব সময় পাওয়া যায় না।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : শাহবাগে শিক্ষার্থী-পুলিশ সংঘর্ষ
-------------------------------------------------------

মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকার প্রায় সব স্কুলের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। মুক্ত আলোচনায় স্কুলের শিক্ষার্থীরাও মেয়রের কাছে তাদের মতামত তুলে ধরেন।

ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে আজিমপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ঐশ্বর্য দাস ঐশী বলেন, দুর্ঘটনা রোধ ও সড়কের শৃঙ্খলা বজায় রাখতে শিক্ষার্থীরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করতে পারে। দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সড়ক দুর্ঘটনা সমস্যার সমাধান পাওয়া যেতে পারে।

বিভিন্ন স্কুল থেকে আসা একাধিক শিক্ষার্থী এ সময় জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেয়ায় তারা এখন যার যার শিক্ষাক্ষেত্রে ফিরে যেতে চান। এছাড়াও মন্ত্রিপরিষদে চলমান আইন নিয়ে আলোচনা চলায় তারা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

রাইফেলস পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী রুম্মন বলেন, সরকার আমাদের দাবি মেনে নিয়েছে আমরা ক্লাসে ফিরে যেতে চাই। প্রত্যেক স্কুলের সামনে ট্র্যাফিক পুলিশের ব্যবস্থা করার জন্য মেয়রের কাছে অনুরোধ জানাই।

আজিমপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাইশা বলেন- আমাদের প্রত্যেক শিক্ষার্থীর দাবি ছিল নিরাপদ সড়ক। সরকার আমাদের সেই দাবি মেনে নিয়েছে। সেজন্য আমরা সবাই ক্লাসে ফিরে যাব।

অভিভাবকদের পক্ষ থেকে কামরুন নাহার বলেন- আমাদের সন্তান তোমরা যারা ৯ দফা দাবিতে আন্দোলন করেছ, তোমরা সফল। কেননা সরকার তোমাদের দাবি মেনে নিয়েছে। তাই তোমরা ক্লাসে ফিরে যাও।

আরও পড়ুন :

পি