• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

বরিশালে ৬ প্রার্থীর ৫ জনেরই ভোট বর্জনের ঘোষণা

বরিশাল প্রতিনিধি
|  ৩০ জুলাই ২০১৮, ১৫:০২ | আপডেট : ৩০ জুলাই ২০১৮, ১৫:৪১
বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মেয়র পদে লড়ছেন ৬ জন। তবে জাল ভোট, হামলা, ভোটে বাধাদানসহ অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে ভোট স্থগিতের দাবি জানিয়েছেন ৫ প্রার্থী। তবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সের‌নিয়াবাত সা‌দিক আবদুল্লাহ বলেছেন, জনগণ উৎসবমুখর প‌রি‌বে‌শে ভোট দি‌চ্ছে।

জানা গেছে, বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার আজ সোমবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে বরিশাল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে নিজেই ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

এ ছাড়া বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) মেয়র প্রার্থী এ কে আজাদ, ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী ওবাইদুর রহমান, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) মেয়র প্রার্থী মনীষা চক্রবর্তী, জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস ভোট স্থগিত ও নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে সরোয়ার অভিযোগ করেন, গাজীপুর ও খুলনায় ভোটগ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা পালন করা হলেও বরিশালে ভোট শুরুই করা হয়নি। ৭০ থেকে ৮০টি কেন্দ্রে ভোট শুরু না হতেই ব্যালটে নৌকার সিল মেরে বাক্স ভর্তি করা হয়েছে। বিএনপি ও অন্য দলের কোনো প্রার্থীর এজেন্টদের ভোটকক্ষে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।  কোনো সরকারের আমলেই এমন নজিরবিহীন ভোট আমরা দেখিনি। এমন প্রহসনের নির্বাচন না করে এমনিতেই ঘোষণা দিয়ে নিয়ে যেতে পারত সরকার।’

সংবাদ সম্মেলনে সরওয়ার নৌকা প্রতীকে সিল মারা ১০ থেকে ১২টি ব্যালট সাংবাদিকদের দেখিয়ে বলেন, সদর গার্লস স্কুল কেন্দ্রে এভাবে ব্যালটে নৌকার সিল মেরে বাক্স ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, ইসলামী আন্দোলনের ওবাইদুর রহমান ও মনীষা চক্রবর্তী সমর্থকদের নিয়ে ‘প্রহসনের নির্বাচন মানি না মানব না’, ‘ভোট চুরির নির্বাচন মানি না মানব না’—এমন বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে বরিশাল সদর রোডে পৃথকভাবে মিছিল করছেন। 

এ সময় মনীষা অভিযোগ করেন, তিনি সদর গার্লস স্কুল কেন্দ্রে গিয়ে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে দেখেন। প্রতিবাদ করলে তাঁর ওপর দুই দফায় হামলা করা হয়। অভিযোগ জানানোর পরও এই কেন্দ্রে নির্বাচন এখনো চলছে। এই কেন্দ্রের মতো সব কেন্দ্রেই নৌকায় সিল মারা হচ্ছে।

বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ বরিশাল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে ভোট গ্রহণে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জন করেছেন। 

এদিকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস বরিশালে ভোট স্থগিত চেয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেছেন। তিনি সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেবেন বলে তার নির্বাচনী এজেন্ট জানিয়েছেন।

রিটার্নিং অফিসার মুজিবুর রহমান আরটিভি অনলাইনকে জানান,  বিএনপি, ইসলামী আন্দোলন ও বাসদ প্রার্থীর অভিযোগ পেয়েছি। তাদের অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

এসজে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়