• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সরকার ইসিকে সহযোগিতা করছে: সেতুমন্ত্রী

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৫ জুন ২০১৮, ২১:২১ | আপডেট : ২৫ জুন ২০১৮, ২১:২৭
গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে অবাধ ও সুষ্ঠু। সরকার নির্বাচনে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করবে না। সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সরকার ইসিকে সহযোগিতা করছে। বললেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

সোমবার বিকেলে ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এত বড় নির্বাচন হচ্ছে, এখনও কোথাও সংঘাতের ঘটনা ঘটেনি। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে গাজীপুরে। সরকার নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন কর্তৃত্বপূর্ণ নির্বাচন পরিচালনায় সহযোগিতা করছে। এটাই আমাদের সংবিধানের বিধান, যেটা আমরা অক্ষরে অক্ষরে পালন করছি।

কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলে দিয়েছেন তিনি অবাধ সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন চান। আওয়ামী লীগের আমলে কোনো কলঙ্কিত-প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের রেকর্ড নেই। তবে বিএনপি আমলের মাগুরা উপনির্বাচন ও ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন দেশের মানুষ আজও ভুলে যাননি। বিএনপি তাদের আমলে ভোট ডাকাতি করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছিল।

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নির্বাচনে জিতলে বলে কমিশন নিরপেক্ষ, আর হারলে কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তোলে। বিএনপিকে খুশি করতে হলে তাদের নির্বাচনে জয়ী করাতে হবে। তা না হলে তারা পুরনো মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজাতে থাকবে।

গাজীপুরে কারচুপি হলে ভয়াবহ পরিণতি হবে বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদের এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির এই নেতা ২০০১ সালে সকাল ১০টায় সিরাজপুরের এক কেন্দ্রে গিয়ে জিজ্ঞাস করে এখনো ভোট শেষ হয় নি? যাদের নির্বাচনের রেকর্ড সকাল ১০টায় শেষ হয়। সে রকম কোনো রেকর্ড আওয়ামী লীগের নেই।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে যেমন নির্বাচন হয়েছে কুমিল্লায় নির্বাচন হয়েছে রংপুরে খুলনায় যেমন হয়েছে, ঠিক একইভাবে গাজীপুরেও নির্বাচন হবে।

কাদের আরও জানান, আগামী ৩০ জুন সকাল সাড়ে ১১ টায় চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগ এবং ৭ জুলাই একই সময়ে ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর ও খুলনা বিভাগের অন্তর্গত ইউনিয়নসমূহের দলীয় চেয়ারম্যান, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে গণভবনে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এমসি/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়