• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

খালেদা জিয়ার তিন মামলার জামিন শুনানি মঙ্গলবার

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২১ মে ২০১৮, ২০:৩৬
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নাশকতার দুই ও মানহানির এক মামলায় জামিন শুনানি আগামীকাল মঙ্গলবার ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। আজ সোমবার মামলাগুলোর শুনানি হওয়ার কথা ছিল।

শুনানির জন্য রাষ্ট্রপক্ষ সময় চাইলে বিচারপতি একেএম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের ডিভিশন বেঞ্চ আজ সোমবার এ দিন ধার্য করে দেন।

এ সময় খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, কায়সার কামাল, রাগীব রউফ চৌধুরী, এম আমিনুল ইসলাম, মীর হেলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।  অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সময় নেন। এসময় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশিরউল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।

বিচারপতি এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের ডিভিশন বেঞ্চে জামিন আবেদন শুনানির জন্য অনুমতি চাওয়া হয়।  কুমিল্লার ২টি নাশকতার এবং নড়াইলের একটি মানহানির মামলায় এ জামিন চাওয়া হয়।

বিএনপির ডাকা হরতাল-অবরোধ চলাকালে ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি ভোরে কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আইকন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী নৈশকোচ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে পৌঁছালে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। বাসে আগুন ধরে ৮ জন যাত্রী পুড়ে মারা যায়।

এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়। মামলা দুটিতে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়। চলতি বছরের ২ জানুয়ারি কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ ২টি মামলায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপি-জামায়াতের ৭৮ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

অন্যদিকে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্যের অভিযোগে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে নড়াইলের একটি আদালতে ১ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করা হয়।

নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রায়হান ফারুকী ইমাম বাদী হয়ে ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নড়াইল সদর আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। এ মামলায় ২০১৬ সালের ২৫ জুলাই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সমন জারি করেন আদালত। সমন গ্রহণ না করায় ২৩ আগস্ট খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন একই আদালত।

এমসি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়