‘জামায়াত ও তাদের দোসররা শান্তিপ্রিয় মানুষের শত্রু’

প্রকাশ | ২৯ এপ্রিল ২০১৮, ২০:০৪ | আপডেট: ২৯ এপ্রিল ২০১৮, ২০:১০

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

ধার্মিকেরা ধর্মচচা করেন আর ধর্মের মুখোশধারী বা ধর্মবাজরা ধর্মনাশ করে। তাই ধর্মের মুখোশ পরা ধর্মনাশী ধর্মবাজদের প্রতিহত করতে হবে। বললেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ধর্ম ও শান্তির আদর্শ নিয়মতান্ত্রিক জীবনের শিক্ষা দেয়। দণ্ডিত অপরাধীকে আইনের উর্ধ্বে রাখার নির্লজ্জ অপচেষ্টাকারীরা যেমন আইন মানে না, তেমনি ধর্মও মানে না। সেকারণেই রাজাকার-জঙ্গি-জামায়াত ও তাদের দোসররা সকল ধার্মিক ও শান্তিপ্রিয় মানুষের শত্রু। শান্তির পথে আগুয়ান হতে এদের সমবেতভাবে প্রতিহত করতে হবে।

আজ (রোববার) রাজধানীর কমলাপুরে ঐতিহাসিক ধর্মরাজিক বৌদ্ধ বিহারে বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘ আয়োজিত ‘বুদ্ধ পূর্ণিমার তাৎপর্য’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : এমপিপুত্র-ছাত্রলীগ সভাপতির কোন্দল চরমে, বিপর্যস্ত আ.লীগ
--------------------------------------------------------

ইনু বলেন, ধার্মিকেরা ধর্মচচা করেন আর ধর্মের মুখোশধারী বা ধর্মবাজরা ধর্মনাশ করে। তারাই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী ও সমাজে বিশৃঙ্খলাকারী।

তিনি বলেন, গৌতম বুদ্ধ অহিংসা ও শান্তির বাণী প্রচার করে মানুষকে অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিয়ে এসেছিলেন। মহামতি বুদ্ধ এবং সকল ধর্মের অনুসারীদের সুন্দর সমাজ প্রতিষ্ঠায় মুখোশধারী ধর্মবাজদের প্রতিহত করতে হবে।

সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো’র সভাপতিত্বে সভায় সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন : 

জেএইচ