• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

‘তারেকও চায় ক্ষমতা, তার বউও চায় ক্ষমতা’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৬:৩৫ | আপডেট : ২৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:১৮
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্য সম্বলিত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন।

১৯ সেকেন্ডের ওই ভিডিও বার্তায় খালেদা জিয়ার বক্তব্যে বলতে শোনা যায়, ‘আপনারা যতই বলেন আন্দোলন, আন্দোলন ঢাকায় সেভাবে করা সম্ভব হয়নি, এখানে পরিবারের মধ্যে গণ্ডগোল আছে। তারেক রহমানকে তো আপনারা ভালো করেই চেনেন, বউয়ের সঙ্গেও গণ্ডগোল। বউও চায় ক্ষমতা, সেও চায় ক্ষমতা।’

তবে খালেদা জিয়া কবে কোথায় এমন বক্তব্য দিয়েছেন তা নিয়ে কিছু বলা হয়নি।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : এমপিপুত্র-ছাত্রলীগ সভাপতির কোন্দল চরমে, বিপর্যস্ত আ.লীগ
--------------------------------------------------------

বিষয়টি নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রেস উইং সদস্য শাইরুল কবির খানের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি আরটিভি অনলাইনকে বলেন, চেয়ারপারসন কারাগারে থেকে এ ধরনের বক্তব্য কীভাবে দেন তা আমার বোধগম্য নয়, বিএনপির বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার চলছে এটা তার অংশ।

এদিকে, এ ভিডিও নিয়ে জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ‘অপপ্রচারের সেল’ খোলা হয়েছে বলে দাবি করে রিজভী বলেন, তারেক রহমানকে নিয়ে আওয়ামী লীগের মাথা ব্যথার যেন শেষ নেই। তাকে নিয়ে তাদের অন্তহীন ষড়যন্ত্র বারবার ব্যর্থ হয়ে যাওয়ায় এখন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নানা অপপ্রচারের জন্য সেল খোলা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর একজন উপ-প্রেস সচিবের ফেসবুক আইডিতে নানা মিথ্যা ও বানোয়াট গল্প বানিয়ে প্রচার করা হচ্ছে।

রিজভী বলেন, ‘আমরা ছাত্রজীবনের ফার্স্ট ইয়ার থেকে দেশনেত্রীকে চিনি। তিনি কখনও বাড়তি কথা বলেন না, অরুচিকর কথা বলেন না। বিভিন্ন সময়ে তিনি নেতাকর্মীদের মধ্যে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা কাটিং পেস্ট করে বোঝানোর চেষ্টা হয়েছে যে পরিবারের মধ্যে সমস্যা হয়েছে।
তিনি বলেন, আমার ধারণা ছিল প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিতরা কাজ করে। কিন্তু তাদের মানসিকতা বস্তির চেয়েও নিম্ন মানের। উন্নত প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে কাটিং পেস্ট করে এই নোংড়া অপপ্রচার করছে। তাদের অন্তরে শিক্ষার কোনো আলো নেই। 
রিজভী বলেন, এই ধরনের অপপ্রচার নিম্নরুচির পরিচায়ক। যারা কুরুচিসম্পন্ন এবং যারা অপরাজনীতি ও অসভ্যতার চর্চা করে তারাই কেবল অসত্য ও নোংরা রাজনীতির আশ্রয় নেয়। আওয়ামী লীগ কুৎসা সঞ্চারিত মনের বিকারে ভোগে। তাদের ঐতিহ্যে সভ্যতা ও সুরুচির কখনোই কোন নিদর্শন ছিল না। সে জন্য তাদের কোনো কথাই জনগণ বিশ্বাস করে না। আমি এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

 

আরও পড়ুন : 

এসজে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়